ইরাক যুদ্ধের হোতা রামসফেল্ড মারা গেছেন

একেটিভি ডেস্ক

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের সময় দেশটির সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে ছিলেন রামসফেল্ড।

ইরাকে মার্কিন হামলার প্রতিবাদে লাখো মানুষ যখন বিক্ষোভ করেছে তখনো রামসফেল্ড ও যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন ভাইস প্রেসিডেন্ট ডিক চেনি ইরাকে হামলার পক্ষে দৃঢ় অবস্থান বজায় রাখেন। ইরাকে হামলাকে তাঁরা বুশের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ হিসেবে অভিহিত করেন। গুয়ানতানামো বে ও আবু গারিব কারাগারে বন্দীদের ওপর নির্যাতন চালানোর পক্ষেও অবস্থান ছিল রামসফেল্ড ও চেনির। আফগানিস্তানে তালেবানদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর বিষয়েও রামসফেল্ডের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল।

রামসফেল্ডের পরিবার জানান, নিউ মেক্সিকোর তাওস এলাকায় তিনি মারা যান।

রামসফেল্ডের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বুশ। বুশ বলেন, রামসফেল্ড প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবে দৃষ্টান্ত তৈরি করেছিলেন। তিনি ভালো মানুষ ছিলেন। সরাসরি ইরাকে হামলার প্রসঙ্গ উল্লেখ না করে বুশ বলেন, রামসফেল্ড সেনাবাহিনীকে আস্থার জায়গায় নিয়ে গিয়েছিলেন। রামসফেল্ড যুক্তরাষ্ট্রকে আরও নিরাপদ ও উন্নত করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় ধরে যাঁরা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে দায়িত্বপালন করেছেন তাঁদের মধ্যে রামসফেল্ড ছিলেন একজন। ২০০৬ সাল পর্যন্ত তিনি প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্বপালন করেন।

Loading...