যুক্তরাষ্ট্রের ২৫ লাখ টিকা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তিন কোটি ডোজ করোনার টিকা পেতে চুক্তি করেছিল বাংলাদেশ। প্রতি মাসে ৫০ লাখ করে ছয় মাসে ওই টিকা আসার কথা ছিল। চুক্তি অনুযায়ী এ বছরের শুরুর দিকে প্রথম দুই চালানে ৭০ লাখ টিকা এসেছিল।

তবে ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হলে দেশটির সরকার টিকা রপ্তানিতে বিধিনিষেধ আরোপ করায় বাংলাদেশেও টিকা আসা বন্ধ হয়ে যায়। এতে দেশে করোনার গণটিকাদান কর্মসূচিও বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়।

এ পরিস্থিতিতে টিকা পেতে বিকল্প উৎসের সন্ধান করে বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্রকেও টিকা দেওয়ার অনুরোধ করা হয়। তাতে সাড়া দিয়ে ২৫ লাখ ডোজ টিকা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। করোনার টিকা বিতরণের বৈশ্বিক উদ্যোগ কোভ্যাক্সের আওতায় বাংলাদেশকে এ টিকা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

এরই মধ্যে ওয়াশিংটন থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ওই টিকা বাংলাদেশের পথে রওনা হয়েছে বলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন।

এদিকে চীন থেকেও করোনার টিকা আনছে বাংলাদেশ। প্রথম চালানে ১০ লাখ ডোজ টিকা ‘শিগগিরই’ দেশে পৌঁছাবে বলে মন্ত্রী আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন।

Loading...