ঠিকাদারদের দায়িত্বহীনতায় যানজট

নিজস্ব প্রতিবেদক

যানজটের দুর্ভোগ কমাতে আগামী রবিবার থেকে ঢাকা-গাজীপুর রেলপথে বিশেষ ট্রেন চালু হচ্ছে। রাজধানী ঢাকার সঙ্গে গাজীপুর হয়ে দেশের ৩৭ জেলার মানুষ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যাতায়াত করে। ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগ সহজতর করতে ২০১২ সালে গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা থেকে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পর্যন্ত বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। দীর্ঘসূত্রতায় প্রকল্পটির কাজ বিলম্বিত হওয়ায় মহাসড়কে খানাখন্দ, সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতায় সৃষ্ট যানজটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দুর্ভোগে থাকতে হচ্ছে যাত্রীদের।

জনদুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে আগামী রবিবার থেকে ঢাকা-গাজীপুর-ঢাকা রেলপথে বিশেষ ট্রেন চালুর কথা জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। বুধবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এমন ঘোষণার কথা জানান তিনি।

ফেসবুক পোস্টে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে এয়ারপোর্ট পর্যন্ত রাস্তাটিকে যানজটমুক্ত করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বিআরটি প্রজেক্ট আমাদের উপহার হিসেবে দিয়েছেন। কিন্তু ঠিকাদারদের ক্রমাগত দায়িত্বজ্ঞানহীনতার কারণে অনেক বছর ধরে ধীর গতিতে কাজ করায় মানুষের দুর্ভোগের কোনো সীমা নেই, আবার যখন বর্ষাকালে এই দুর্ভোগ কয়েক গুণ বৃদ্ধি পায়। বিআরটি প্রজেক্টে দায়িত্ব পালনরত সচিব, পিডিসহ সবাইকে প্রায় প্রতিদিনই কয়েকবার করে ফোন করছি যাতে টঙ্গী-গাজীপুরবাসীসহ এই সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী প্রায় ৩৭ জেলার মানুষদের এই দুর্ভোগের হাত থেকে দ্রুত রক্ষা করা যায়। সিটি করপোরেশন, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ, জেলা প্রশাসনসহ সবাই আন্তরিকভাবে চেষ্টা করছেন। দুর্ভোগের হাত থেকে মানুষদের কিছুটা হলেও রক্ষা করতে আজ রাতে রেলমন্ত্রী মহোদয়ের সঙ্গে কথা বলে আগামী রবিবার থেকে গাজীপুর থেকে টঙ্গী হয়ে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে টঙ্গী হয়ে গাজীপুর পর্যন্ত বিশেষ ট্রেন সার্ভিস চালু করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন মহোদয় এর প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।

Loading...