বাবুল আক্তারকে চট্টগ্রাম থেকে পাঠানো হলো ফেনী কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম প্রকাশ: ২৯ মে ২০২১

স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারকে চট্টগ্রাম থেকে ফেনী কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আজ শনিবার তাঁকে ফেনীতে পাঠানো হয়েছে বলে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের কারাধ্যক্ষ দেওয়ান মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম জানিয়েছেন।

মাহমুদা খুন হওয়ার প্রায় পাঁচ বছর পর ১২ মে আলোচিত এই হত্যাকাণ্ডে বাবুল আক্তারকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর ১৭ মে থেকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে ছিলেন তিনি। এর মধ্যে শারীরিক অসুস্থতার কথা জানিয়ে বাবুল আক্তারকে বাইরে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন তাঁর আইনজীবী। পরে আদালত এ বিষয়ে কারাবিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন।

এখন বাবুল আক্তারকে কেন ফেনী কারাগারে পাঠানো হলো সে বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রামের কারাধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম বলেছেন, বিশেষ কোনো কারণ নেই।

তবে কয়েকটি কারা সূত্র জানিয়েছে, বাবুল আক্তারকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সেলে রাখা হয়েছিল। সেল ভবনের তৃতীয় ও চতুর্থ তলা বর্ধিতকরণের কাজ চলছে। গত মার্চ মাসে নির্মাণাধীন এই ভবন থেকে লাফিয়ে এক বন্দী পালিয়ে যান। এই পরিপ্রেক্ষিতে নিরাপত্তাসহ নানা কারণে বাবুল আক্তারকে চট্টগ্রাম থেকে স্থানান্তর করা হয়েছে।

২০১৬ সালের ৫ জুন চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড় এলাকায় ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে গিয়ে খুন হন মাহমুদা। গত ১২ মে ওই ঘটনায় বাবুলের করা মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয় পিবিআই। সেদিনই চট্টগ্রাম নগরের পাঁচলাইশ থানায় বাবুল আক্তারসহ আটজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন মাহমুদার বাবা মোশারফ হোসেন।

মাহমুদার বাবার করা মামলায় বাবুলকে গ্রেপ্তার করে পিবিআই। পরে তাঁকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। আদালতে হাজির করা হলে প্রথমে জবানবন্দি দিতে রাজি হলেও বিচারকের খাসকামরা থেকে জবানবন্দি না দিয়ে ফিরে আসেন বাবুল। আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

Loading...