২ ভাগে বিভক্ত হচ্ছে জনসন অ্যান্ড জনসন

২ ভাগে বিভক্ত হচ্ছে বিখ্যাত কোম্পানি জনসন অ্যান্ড জনসন

ভোক্তা স্বাস্থ্যপণ্যের ব্যবসা দিয়েই বিস্তৃতভাবে পরিচিতি পেয়েছিল জনসন অ্যান্ড জনসন। এখন সেই ব্যবসা আলাদা করার উদ্যোগ নিয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্বাস্থ্য সম্পর্কিত এই পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

সম্প্রতি দেয়া ঘোষণায় প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, ভোক্তা স্বাস্থ্যপণ্য থেকে ওষুধ বা প্রাথমিক চিকিৎসার সরঞ্জাম তৈরির ব্যবসাটি আলাদা করা হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে ব্যান্ড এইড, লিস্টেরিন, টাইলেনলসহ বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা সরঞ্জাম।

 

 

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, জনসন এন্ড জনসন প্রতিষ্ঠানটিকে দুই ভাগ করার মাধ্যমে ব্যবসায় নতুন দিক সৃষ্টি করতে চান তারা। একটি প্রতিষ্ঠান দেখবে বেবি পাওডারের মতো ভোক্তাদের স্বাস্থ্যসম্পর্কিত পণ্যগুলো, অন্যটি দেখবে ফার্মাসিউটিক্যালস ও মেডিক্যাল ডিভাইস-সংক্রান্ত ব্যবসা। এর মাধ্যমে ব্যবসাগুলো নিজ নিজ বাজারের সঙ্গে আরো দ্রুত খাপ খাইয়ে নিতে পারবে।

জনসন অ্যান্ড জনসনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যালেক্স গোর্স্কি বলেন, অতীতে আমরা বৃহত্তর পরিসর নিয়ে চিন্তা করতাম। এখন সে ব্যবসাগুলোর জন্যই আলাদাভাবে চিন্তাভাবনা করব। সময়ের ব্যবধানে এসব বাজারে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন এসেছে। বিশেষ করে ভোক্তাদের দিক থেকে। তাদের আচরণে আগের চেয়ে সবচেয়ে যে বড় পরিবর্তনটি এসেছে সেটি হলো এখন অনলাইনে কেনাকাটার পরিমাণ অনেক বেড়েছে। বিশেষ করে কভিড-১৯ মহামারী চলাকালে।

বিশ্লেষকরা জনসন অ্যান্ড জনসনের কর্মকর্তাদের কাছে জানতে চেয়েছিলেন যে কেন এ পরিবর্তন? কোন কারণে এতদিনের প্রতিষ্ঠানটিকে দুই ভাগে বিভক্ত করতে হলো? জবাবে অ্যালেক্স গোর্স্কি বলেন, আমরা বিশ্বাস করি যে আমাদের বৈচিত্র্যপূর্ণ পণ্যসম্ভারের মধ্যেই কৌশলটি নিহিত। তবে এটিই চূড়ান্ত কৌশল নয়।

ইউনিভার্সিটি অব মিশিগানের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের অধ্যাপক এরিক গর্ডন জানান, তিনি মনে করেন না যে আলাদা কোম্পানি খুলে খুব বেশি উপকার হবে। কারণ মূল কোম্পানিটি এরই মধ্যে বিকেন্দ্রীকরণ হয়ে গেছে। ফলে আলাদা কোম্পানি দুটি যে খুব চটকদার কিছু হবে তা মনে হচ্ছে না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.