শিশু ধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় ৯ বছরের এক মেয়েশিশুকে ধর্ষণের মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। আজ সোমবার বিকেলে শেরপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা জজ) মো. আখতারুজ্জামান এ রায় দেন। তবে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি পলাতক।

দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম আহাম্মদ আলী । তিনি নালিতাবাড়ী উপজেলার বাঁশকান্দা গ্রামের বাসিন্দা। মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ২৫ আগস্ট রাত আটটার দিকে নালিতাবাড়ী উপজেলার একটি বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিল মেয়েটি। মেয়েটির পিছু নেন আহাম্মদ আলী। মেয়েটি তার বাড়িতে চলে যায়। এ সময় মেয়েটির মা–বাবা ও স্বজনেরা বাড়িতে ছিলেন না। এই ফাঁকে আহাম্মদ আলী মেয়েটিকে একটি ছাপরায় নিয়ে ধর্ষণ করেন। পরে বিষয়টি জানাজানি হয়। এ ঘটনায় মেয়েটির বড় ভাই বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আহাম্মদ আলীর নামে নালিতাবাড়ী থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। মামলার তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ১২ ডিসেম্বর নালিতাবাড়ী থানার তৎকালীন উপপরিদর্শক (এসআই) মো. রুহুল আমীন তালুকদার আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আদালত এ রায় দেন।

রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি গোলাম কিবরিয়া সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, আসামি গ্রেপ্তারের দিন থেকে এ রায় কার্যকর হবে। তবে ঘটনার পর থেকেই আহাম্মদ আলী পলাতক থাকায় তাঁর পক্ষের কোনো আইনজীবী আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.