শিক্ষার্থীরা ছাড়লেও ব্যবসায়ীরা ভাঙল অ্যাম্বুলেন্স

নিউমার্কেটের দোকান কর্মচারী ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ থেকে রেহাই পেল না রোগীবাহী অ্যাম্বুলেন্স। মঙ্গলবার ১৯ এপ্রিল দুপুর ১টার দিকে নীলক্ষেত এলাকা থেকে ঢাকা কলেজ পেরিয়ে যাওয়ার সময় রোগীবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি ভাঙচুর করে ব্যবসায়ীরা।

 

 

হামলার শিকার অ্যাম্বুলেন্স চালক জাহাঙ্গীর আলম সংবাদমাধ্যমকে জানান, রাজধানীর আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতাল থেকে অপারেশনের রোগী নিয়ে ঢাকা মেডিকেলে যাওয়ার পথে ব্যবসায়ীদের হামলার শিকার হয় অ্যাম্বুলেন্স।

 

 

তিনি বলেন, আমি রোগী নিয়ে যাওয়ার সময় প্রথমে ছাত্ররা আটকায়। গাড়িতে রোগী দেখে তারা যেতে দেয়। কিন্তু মার্কেটের সামনে গেলেই অতর্কিত আমার গাড়িতে হামলা করে দোকানদাররা। আমাকেও আহত করে।

 

 

রোগী কোথায় জানতে চাইলে জাহাঙ্গীর বলেন, আমি কোনো রকম রোগীকে মেডিকেলে রেখে চলে এসেছি।

 

 

তবে, এ বিষয়ে ব্যবসায়ী ও দোকানকর্মীদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

 

সোমবার ১৮ এপ্রিল রাতের সংঘর্ষের জের ধরে মঙ্গলবার ১৯ এপ্রিল সকাল ১০টার দিকে আবারও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীরা। সংঘর্ষের কারণে ওই এলাকায় বন্ধ হয়ে যায় সব ধরনের যানবাহন। ভোগান্তিতে পড়ে শত শত পথচারী। এর ফলে অন্য সড়কগুলোতেও দেখা দেয় তীব্র যানজট।

 

 

 

ঢাকা কলেজের মূল ফটকের ভেতরে থাকা ছাত্রদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ব্যবসায়ীরা। অন্যদিকে, ঢাকা কলেজ ভবনের ছাদ থেকে নিউমার্কেটের দিকে ইটপাটকেল ছুটতে দেখা গেছে শিক্ষার্থীদের। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ সংঘর্ষ শুরু হলে ওই এলাকা যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত হয়। সকাল থেকে সংঘর্ষ চললেও দুপুরের পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। বেলা দেড়টার দিকে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছুড়লে শিক্ষার্থীরা সরে যায়। ঘটনাস্থলে এখন ব্যবসায়ী ও পুলিশ রয়েছে।

 

 

 

ঢাকা কলেজের সংঘর্ষ, ফেসবুককে দায়ী করলেন শিক্ষামন্ত্রী

 

 

নিউমার্কেট এর ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.