রাশিয়ার নারীরা যে কারণে এত সুন্দর

পৃথিবীতে এমন কিছু দেশ আছে যেসব দেশের মানুষ অন্যান্য দেশের মানুষের চেয়ে একটু বেশি সুন্দর। চেহারার লাবণ্য, দৈহিক অবয়ব, আবেদনময়ী ভঙ্গিমা ইত্যাদির বিচারে বিশ্বের বেশ কিছু দেশের নারীদের পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর নারী বলা হয়। যার মধ্যে রাশিয়ার নারীরা অন্যতম।

 

রাশিয়ান নারীরা সারা বিশ্বে ব্যাপকভাবে আলোচিত। তাদের গায়ের রং, শারীরিক গঠন, চুলের সৌন্দর্য, লোভনীয় চোখ, নিশ্ছিদ্র পরিষ্কার ত্বক, ভালো উচ্চতার সাথে সুন্দর ফিগারের জন্য সবসময় তারা আবেদনময়ী।

 

তাদের এই চোখ জুড়ানো সৌন্দর্য নিয়ে আলোচনা কম হয় না। কিন্তু এর পেছনের রহস্য কী? কীভাবে তারা এই সৌন্দর্য ধরে রাখেন? রাশিয়ার নারীরা ত্বকের যত্নে বেশ সচেতন। জেনে নিন রূপচর্চায় তারা কোন কাজগুলো করে থাকেন-

গোলাপজলের ব্যবহার
প্রতিদিন সকালে গোলাপ জল দিয়ে মুখ পরিষ্কার করলে ত্বক টোনিং হয় ভালোভাবে। তাছাড়া ত্বক ভালো রাখতে গোলাপজলের উপকারিতা সম্পর্কে তো আমরা কমবেশি জানিই। এই উপকারী উপাদানই কাজে লাগান রাশিয়ার নারীরা।

বিশেষ টক ক্রিম ব্যবহার
ত্বকের যত্নে রাশিয়ার নারীদের আছে নিজস্ব কিছু উপায়। তারা ফেসপ্যাক তৈরির সময় এক ধরনের টক স্বাদের ক্রিম ব্যবহার করেন। এই ক্রিমে থাকে ল্যাকটিক অ্যাসিড। এটি ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে।

ডিমের কুসুমের ব্যবহার
রাশিয়ায় সারা বছরই ঠান্ডা থাকে। যে কারণে সেখানকার আবহাওয়া থাকে ভীষণ রুক্ষ ও শুষ্ক। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে তাই রাশিয়ার মেয়েরা ডিমের কুসুম ব্যবহার করে। এতে ত্বকের রুক্ষতা দূর হওয়ার পাশাপাশি বজায় থাকে প্রাকৃতিক আর্দ্রতা। সেইসঙ্গে ডিমের কুসুম ত্বকে পুষ্টি পৌঁছে দেয়।

শসার রসের ব্যবহার
ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে কাজ করে শসার রস। সেইসঙ্গে এটি ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতেও কাজ করে। নিয়মিত এর রস ব্যবহার করলে ত্বকে বলিরেখা পড়ে না। ত্বকের শুষ্কতার জন্য লালচে বা ফোলাভাব দেখা দিলে শসার রস ব্যবহার করা হয়। এই কাজটিই যত্ন নিয়ে করে রাশিয়ার নারীরা। যে কারণে তাদের ত্বক থাকে এত সুন্দর।

রাস্পবেরি রসের ব্যবহার
রাশিয়ার নারীদের ঠোঁটে অনেকটা গোলাপের পাপড়ির আভা ছড়িয়ে থাকে। এর জন্য তারা ঠোঁটে রাস্পবেরির রস ব্যবহার করে। এই ফলে থাকে প্রচুর খনিজ ও ভিটামিন। তাই এটি ব্যবহারে ঠোঁটে সঠিক পুষ্টিও পৌঁছায়। সেইসঙ্গে দূর হয় ঠোঁটের কালচে ছোপও। রাস্পবেরির রসের সঙ্গে লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে ব্যবহার করলে বেশি ভালো ফল পাওয়া যাবে।

বিটরুটের ব্যবহার
গালে প্রাকৃতিকভাবে গোলাপি আভা নিয়ে আসার জন্য রাশিয়ার নারীরা ব্যবহার করে বিটের রস। এটি হলো প্রাকৃতিক ডিটক্স এজেন্ট। ত্বকে আর্দ্রতা জোগানোর পাশাপাশি এটি ত্বকে উজ্জ্বলতা বাড়ায়। পাশাপাশি ব্রণ এবং ডার্ক সার্কেল প্রতিরোধে কাজ করে বিটরুট।

সল্ট স্ক্রাব
ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে বিশেষ এক ধরনের স্ক্রাব ব্যবহার করেন রাশিয়ার নারীরা। তারা অলিভ অয়েলের সঙ্গে লবণ মিশিয়ে এক ধরনের স্ক্রাব তৈরি করে। এরপর সেই স্ক্রাব দিয়ে ত্বক এক্সফোলিয়েট করে। যে কারণে ত্বকের মৃত কোষ ঝরে ত্বক সুন্দর হয়ে ওঠে।

 

সুন্দর ত্বক পেতে, আর নয়,অতিরিক্ত মিষ্টি……।

 

রক্ত দেখলেই ভয় পান আফরান নিশো

Leave A Reply

Your email address will not be published.