রাবি ছাত্রীর লাশ উদ্ধারের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী ছন্দা রায়ের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষী ব্যক্তিদের বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানিয়েছেন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সহপাঠীরা।

 

আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যারিস রোডে মানববন্ধন থেকে তাঁরা এই দাবি জানান।

কর্মসূচিতে বিভাগের অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন খান বলেন, ‘বিশ্বজুড়ে আত্মহত্যার পরিসংখ্যান অনুসারে দেখতে পাই, ছন্দার বয়সে এ রকম সিদ্ধান্ত নেওয়ার মতো নয়। সে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্র্যাজুয়েশন করেছে। তাঁর অর্থনৈতিক অবস্থাও খুব একটা খারাপ ছিল না। এ অবস্থায় সদ্য বিয়ে করা একটা মেয়ে কোনো অবস্থাতেই আত্মহত্যা করতে পারে না। এটাকে আত্মহত্যা আমরা বলতে পারি না। নিশ্চয়ই এর পেছনে অনেক গভীর কোনো ঘটনা লুকিয়ে আছে। তাই আমরা চাই এর সুষ্ঠু তদন্ত হোক এবং যাঁরাই এর পেছনে জড়িত তাঁদের সর্বোচ্চ বিচার আমরা আশা করছি।’

ছন্দার সহপাঠী আরিফা আক্তার বলেন, ‘সে খুবই হাসিখুশি একটা মেয়ে ছিল। বিয়ের মাত্র আড়াই মাসে এমন একটা সিদ্ধান্ত নিল, তা আমাদের মানতে খুবই কষ্ট হচ্ছে। সে নিশ্চয়ই কোনো মানসিক কষ্টে ছিল, এ জন্য এত বড় একটা পদক্ষেপ নিয়েছে। তাই আমরা চাই যে বিষয়টার সুষ্ঠু তদন্ত হোক।’

রাবি ছাত্রীর লাশ উদ্ধারের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি

মানববন্ধনে ছন্দা রায়ের সহপাঠী জাবেদুল ইসলামের সঞ্চালনায় ছন্দার সহপাঠী ও বিভাগের অন্য শিক্ষার্থীরা বক্তব্য দেন। কর্মসূচিতে বিভাগের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী ও সহপাঠী উপস্থিত ছিলেন।

রাবি ছাত্রীর লাশ উদ্ধারের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি

এর আগে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে ঢাকার মুগদা থানার মানিকনগরের বাসা থেকে পুলিশ ছন্দা রায়ের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ জানিয়েছে, লাশ উদ্ধারের সময় একটি ‘চিরকুট’ পাওয়া গেছে। ছন্দা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। চলতি বছরের মার্চে তিনি স্নাতকোত্তর পরীক্ষা শেষ করেছেন। এখনো পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়নি। গত ৮ জুলাই ছন্দার সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের উপপরিচালক উত্তম কুমারের বিয়ে হয়।

 

 

সমালোচনা সত্ত্বেও ইভিএম ব্র্যান্ডিংয়ে তৎপর ইসি

আ.লীগ কার্যালয়ে সেদিন কী আলোচনা হয়েছিল

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.