যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সরাসরি কোনো আলোচনা করবে না ইরান

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সরাসরি কোনো আলোচনা না করার ঘোষণা দিয়েছে ইরান। জয়েন্ট কম্প্রিহেন্সিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) নিয়ে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় পরবর্তী ধাপের আলোচনা শুরু হয়েছে। এ আলোচনার আগে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইরানের সরাসরি আলোচনার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির পক্ষ থেকে। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে এ তথ্য জানান। খবর তাসনিম নিউজ এজেন্সির।

 

 

 

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, জয়েন্ট কম্প্রিহেন্সিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) নিয়ে আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় কোনো সমঝোতায় যাবে না ইরান। ভিয়েনায় মার্কিন ও ইরানের প্রতিনিধি দলের মধ্যে সরাসরি কোনো অলোচনাই হবে না। এসময় ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র যুক্তরাষ্ট্রকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, ইরানের ওপর থেকে একতরফাভাবে আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের প্রকৃত ইচ্ছা যদি যুক্তরাষ্ট্রের থাকে তবে তারা চুক্তিতে পুনরায় আসতে পারবে। অন্যথায় তাদের জেসিপিওএ আলোচনার বাইরেই থাকতে হবে। সাঈদ খাতিবজাদে বলেন, ট্রাম্পের ব্যর্থ উত্তরাধিকার ধরে রাখতে ছয় দফা আমাদের সময় নষ্ট করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরান সদিচ্ছা নিয়ে আলোচনায় যোগ দিচ্ছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি পরামর্শ মার্কিন প্রশাসন যেন এ সুযোগটি নেয়।

 

 

 

 

 

এমন সুযোগ সবসময় থাকবে না, যোগ করেন ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র। সাঈদ খাতিবজাদে বলেন, ভিয়েনার আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রকে ২০১৫ সালের পর থেকে ইরানের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের মানসিকতা নিয়ে অংশ নেওয়ার অনুরোধ করা হচ্ছে। ২০১৫ সালে সই হওয়া চুক্তি অনুযায়ী ইরানের পরমাণু কর্মসূচি সীমিত করার বিনিময়ে দেশটির ওপর আরোপ করা অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। তবে ২০১৮ সালে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চুক্তি থেকে সরে এসে ফের ইরানের ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন।

 

 

 

এডিটঃ রেজুয়ানা রাহমান মিতু

 

 

বিএনপির সাবেক এমপি মোমিন তালুকদারের মৃত্যুদণ্ড

মিসরে তিন হাজার বছরের প্রাচীন রাজপথ উন্মুক্ত

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.