মা–বাবার সঙ্গে কথা বলতে বলতেই নাট্যনির্মাতার মৃত্যু, দাফন সম্পন্ন

দীর্ঘদিন ধরে জন্ডিসে আক্রান্ত ছিলেন নাট্যপরিচালক সাখাওয়াৎ মানিক। তিনি হেপাটাইটিস-বি ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন। চিকিৎসকের পরামর্শে পাবনায় গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। বিশ্রামে কিছুটা সুস্থও হয়ে উঠছিলেন।

এর মাঝেই হঠাৎ করে শনিবার রাত প্রায় আটটার দিকে মা–বাবার সঙ্গে কথা বলতে বলতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। তাঁর বয়স হয়েছিল ৩৭ বছর। তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন ডিরেক্টরস গিল্ড, অভিনয়শিল্পী সংঘসহ ছোট পর্দার সব সংগঠন ও সহকর্মীরা।

ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি সালাউদ্দিন লাভলু বলেন, ‘তরুণ একজন নির্মাতার এভাবে চলে যাওয়াটা আমাদের জন্য খুবই কষ্টের। আগে থেকেই আমরা অবগত ছিলাম সাখাওয়াত কিছুটা অসুস্থ ছিল। আমরা কথা বলে তাকে বিশ্রামেও থাকতে বলেছিলাম। দেখা যেত বিশ্রাম নিলে কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠত। এর মাঝেই গতকাল শুনলাম সে আর নেই। আমরা একজন সহকর্মীকে হারিয়ে ব্যথিত। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি।’

মা–বাবার সঙ্গে কথা বলতে বলতেই নাট্যনির্মাতার মৃত্যু, দাফন সম্পন্ন

তাঁর মৃত্যুর খবর ঢাকা থেকে এই পরিচালকের সহকর্মী বি ইউ শুভ, রাসেল আযম, সেতু আরিফ, রাফাত মজুমদার, রাকিব হোসেন, শাওনসহ বেশ কয়েকজন পাবনার চলে যান। রাফাত মজুমদার বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে নিয়মিতই কথা হতো। দেখা যেত, সাখাওয়াৎ ভাই কিছুটা অসুস্থ হলেই বিশ্রাম নিতেন। এখন কিছুটা ভালো হয়ে উঠছিলেন। ভেবেছিলাম তিনি সুস্থ হয়ে আবার কাজে ফিরবেন। তা হলো না। আমরা সাখাওয়াত ভাইয়ের মা–বাবা ও পরিবারের অন্যদের সঙ্গে কথা বলেছি। জানতে পারলাম, সাখাওয়াত ভাই সন্ধ্যার পর ওয়াশরুমে গিয়েছিলেন। বের হয়ে তাঁর মা–বাবার সঙ্গে ভালোভাবেই কথা বলছিলেন। এর মাঝেই হঠাৎ তাঁর শরীর ছেড়ে দেয়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তিনি পড়ে যান। পরে তাঁর মৃত্যু হয়।’

মা–বাবার সঙ্গে কথা বলতে বলতেই নাট্যনির্মাতার মৃত্যু, দাফন সম্পন্ন

২০১১ সালে সাখাওয়াৎ মানিকের নাটকের ক্যারিয়ার শুরু হয়। প্রথম দিকে তিনি অপূর্ব, এফ এস নাঈম, সারিকা, শখদের নিয়ে একাধিক নাটক বানিয়েছেন। দীর্ঘ প্রায় এক যুগের ক্যারিয়ারে তাঁর ‘ছোট পাখি’, ‘তবুও ভালোবাসি’, ‘আড়াল’, ‘আজ শফিকের বিয়ে’, ‘সেই মেয়েটি’, ‘ব্ল্যাক কফি’, ‘কেন মিছে নক্ষত্ররা’, ‘প্রিয়জন’, ‘তৃষ্ণা’, ‘হাইড স্টোরি’, ‘অপরাহ্ণ’, ‘ঠিকানা ভুল’ ছিল। এ ছাড়া ধারাবাহিক নাটক ‘মেঘে ঢাকা শহর’ দিয়েও তিনি আলোচনায় আসেন।

জানা যায়,  পাবনার বেড়া থানার পেঁচাকোলা গ্রামে বাদ জোহর (দুইটায়) সাখাওয়াতের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁর দাফন হয়েছে।

 

বাবার বাবার

হাফেজ তাকরিমকে নিয়ে যা বললেন শাওন

কৌতুক অভিনেতা রনিকে কেবিনে নেওয়া হয়েছে

Leave A Reply

Your email address will not be published.