মদ্যপ বাইকারের ধাক্কায় আহত আজকের পত্রিকার সাংবাদিক আলআমিন

রাজধানীর শাহজাদপুর এলাকায় এক মদ্যপ বাইকারের ধাক্কায় মারাত্মকভাবে আহত হয়েছেন সাংবাদিক আলআমিন ভূঁইয়া। তিনি বর্তমানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। ঘটনার সময় দৈনিক আজকের পত্রিকার সাংবাদিক আলআমিন ভূঁইয়া ডিউটি শেষে মোটরসাইকেল যোগে বাসায় ফিরছিলেন।

ঘটনাস্থলে থাকা সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, সাংবাদিক আলআমিন ভুঁইয়া তাঁর ব্যক্তিগত মোটরসাইকেলে করে বাসায় ফেরার পথে শাহজাদপুরের ক্যামব্রিয়ান কলেজের সামনে এক মদ্যপ বাইকার উচ্চগতিতে রেষারেষি করে ওভারটেক করতে গিয়ে তাকে ধাক্কা দেয়। এসময় তিনি বাইক থেকে ছিটকে পড়ে যায়। এতে সাংবাদিক আল আমিন মারাত্মকভাবে জখম হন। তাঁর মোটরসাইকেলের ক্ষয়ক্ষতিও হয় ব্যাপকভাবে।

পরে সেখানে উপস্থিত লোকজন তাকে উদ্ধার করে বাড্ডার আদর্শনগরে অবস্থিত মেডিলিংক হাসপাতালে নিয়ে যায়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বৃহস্পতিবার ডিএমপির গুলশান থানায় একটি সাধারণ ডাইরি করেন এই সাংবাদিক।

আহত সাংবাদিক আলআমিন ভূঁইয়া জানান, ডিউটি শেষে বাসায় ফেরার পথে গুলশানের শাহজাদপুর এলাকায় পৌঁছালে তীব্র গতি নিয়ে মদ্যপ অবস্থায় এক বাইকার সজোরে আমার বাইকে ধাক্কা দেয় এতে আমি গাড়ি থেকে ছিটকে পড়ে মারাত্মক আহত হই। পাশাপাশি আমার গাড়িটিও ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়। তাৎক্ষনিক মামুন নামের স্থানীয় একজন আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাসায় পৌঁছে দেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী নাসির বলেন, আমরা দেখি একজন লোক স্বাভাবিকভাবে বাইক চালাচ্ছিল কিন্তু হঠাৎ করেই পিছন থেকে অন্য আরেকজন বাইকার অনেক গতিতে বাম পাশ থেকে একটি প্রাইভেটকারকে অতিক্রম করে সামনে থাকা বাইকটিকে ধাক্কা দেয়, এতে সামনের বাইকের লোকটি ছিটকে পরে যায়।

এরা প্রায়ই এই সড়কে বেপরোয়াভাবে বাইক চালায় যা এই সড়কে চলাচলকারীদের জন্য নিয়মিত আতংক হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রশাসন এদের বিষয়ে কঠোর অবস্থান নিলে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়ানো সম্ভব বলেও দাবি করেন ঘটনাস্থলে থাকা এলাকাবাসী।

এ ব্যাপারে গুলশান থানার সাব ইন্সপেক্টর আলমগীর জানান, ঘটনার সময়কার সিসিটিভি ফ্যুটেজ আমরা সংগ্রহ করেছি, ঘটনাটি রাতে ঘটায় সিসিটিভি ফুটেজে ওই গাড়িটির নাম্বার কিংবা আরোহীর ছবি স্পষ্ট না। তবে আমরা চেষ্টা করছি দোষীকে শনাক্ত করতে। শনাক্ত করা গেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা।

Loading...