ভারতে পাহাড় থেকে পাথর পড়ে ৯ পর্যটক নিহত

ভারতে উত্তরাঞ্চলে পাহাড় থেকে পাথর ধসে নয়জন নিহত হয়েছেন।নিহতদের সবাই পর্যটক ছিলেন।  সে সময় তারা গাড়িতে অবস্থান করছিলেন।  আচমকা পাথর এসে তাদের গাড়িতে পড়লে গাড়িতে থাকা ৯ জন নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন তিনজন। রোববার হিমাচল প্রদেশের কিনাউর জেলায় এ ঘটনা ঘটে।

ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পাহাড় থেকে পাথর পড়ার দৃশ্য ছড়িয়ে  পড়ার দৃশ্য ভাইরাল হয়েছে। ভিডিও চিত্রে দেখা যায়, খাড়া উপত্যকা থেকে বড় বড় পাথর নিচে একটি সেতু  ও তার চতুর্দিকে ছড়িয়ে পড়ছে।  এতে করে  ব্রিজটি পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যায়। 

এ ঘটনায় হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুর  দুঃখ প্রকাশ করেছেন  এবং  দুর্ঘটনাকে তিনি ‘হৃদয়বিদারক’ বলে মন্তব্য করেছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি ভিডিওতে দেখা যায়, দুর্ঘটনাস্থলের কাছে পার্কিং করে রাখা গাড়ির দিকে বড় বড় পাথর গড়িয়ে পড়ছে। পরে একটি পাথর  সেতুর উপর আছড়ে পড়লে  সেতুটি ধসে পড়ে। 

এদিকে দুর্ঘটনা নিহত ব্যক্তিদের স্বজনদের প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সহমর্মিতা জানিয়েছেন। তিনি এ ঘটনায় যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদেরকে সরকারি ত্রাণ তহবিল থেকে সহযোগিতা করবেন বলে জানিয়েছেন।

এদিকে দুর্ঘটনার পর জরুরী উদ্ধার তৎপরতা চালানো হচ্ছে বলে দাবি করেছেন  মুখ্যমন্ত্রী জয় রাম ঠাকুর। তিনি বলেছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের কাছে জরুরী সাহায্য পৌঁছানোর জন্য উদ্ধারকারীরা অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। 

অপরদিকে ভারতের  শীর্ষ স্থানীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে যে নিহতদের মধ্যে কয়েকজন বাসিন্দা ছিলেন তারা হিমাচল প্রদেশের পর্যটন এলাকায় ঘুরতে গিয়েছিলেন। দুর্ঘটনার জন্য ভারী বৃষ্টিপাত কে দায়ী করা হচ্ছে।  তবে প্রকৃত দুর্ঘটনার কারণ এখনো জানা যায়নি। এছাড়া কয়েকদিন আগে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে ওই এলাকায় ভূমিধস ও পাহাড় ধসের সতর্কতা স্থানীয় প্রশাসন জারি করেছিল।

এদিকে ভারী বৃষ্টিপাতে সৃষ্ট বন্যায় মহারাষ্ট্র গোয়ায় এখন পর্যন্ত ১৩৬ জন নিহত হয়েছেন।বর্তমানে এই দুই রাজ্য বন্যার কারণে পানির তলায় অবস্থান করছে।  অধিকাংশ এলাকা পানির নিচে।বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে ইতোমধ্যে নিরাপদ অবস্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ভারতে সাধারণত জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বর্ষা মৌসুমে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে দেখা যায়।

 

সম্পাদনা: আরিফুল ইসলাম লিখন।

Loading...