ভারতে আবারো অবনতির দিভারতে আবারো অবনতির দিকে করোনা পরিস্থিতিকে করোনা পরিস্থিতি

ভারতে আবারো অবনতির দিকে যাচ্ছে করোনা পরিস্থিতি। এ অবস্থায় সংক্রমণ রুখতে দেশটির রাজধানী দিল্লিতে মাস্ক পরাকে বাধ্যতামূলক করেছে কর্তৃপক্ষ। এদিকে চীনের সাংহাইয়ে চলমান লকডাউনে সাধারণ মানুষ দীর্ঘদিন গৃহবন্দি অবস্থায় থেকে মানসিক অবসাদে ভুগছেন বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম।

 

 

ভারতে আবারো অবনতির দিকে করোনা পরিস্থিতি। হু হু করে বাড়ছে এর সংক্রমণ। গেল ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে দুই হাজার তিনশো ৩৮ জন নতুন করোনার রোগী শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। যা আগের দিনের তুলনায় ৪২ শতাংশ বেশি। এ ছাড়াও গত দিনের তুলনায় দেশটিতে মৃতের সংখ্যাও ৫৬ জন বেশি। এর মধ্যে দেশটির কেরালা রাজ্যে শনাক্তের হার ও মৃত্যু সবচেয়ে বেশি।

 

 

দেশটিতে হঠাৎ করে আবারো করোনার সংক্রমণ বাড়ার জন্য সরকারের বিধিনিষেধ শিথিলকে দায়ী করেছে দিল্লির কোভিড হাসপাতাল। তবে করোনার সংক্রমণ বাড়লেও এখনো হাসপাতালে রোগীর বাড়তি চাপ নেই বলেও জানিযেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তারা বলেন, কয়েক সপ্তাহ আগেই করোনার বিধিনিষেধ শিথিল করার পরই আবারো বাড়তে শুরু করেছে করোনা সংক্রমণ। এটা দিন দিন বেড়েই চলেছে। তবে সংক্রমণ বাড়লেও হাসপাতালগুলোতে এখনো বাড়তি রোগীর চাপ সৃষ্টি হয়নি। তাই সংক্রমণ রুখতে এখনি আমাদের সতর্ক হওয়া উচিত বলে আমি মনে করি।

 

তবে আবারো করোনার সংক্রমণ বাড়ায় দিল্লিতে মাস্ক পরাকে বাধ্যতামূলক করেছে কর্তৃপক্ষ।

 

 

এদিকে চীনে যেসকল অঞ্চলে করোনা কিছুটা নিয়ন্ত্রণে ওই সব অঞ্চলগুলোতে বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল করা হয়েছে। এ অবস্থায় শহরটিতে বন্দি থাকা ৪০ লাখ মানুষ সাংহাইয়ের বাইরে যেতে পেরেছে। তবে দীর্ঘদিন লকডাউনে মানুষ গৃহবন্দি থাকায় অনেকেই মানসিক অবসাদে ভুগছেন বলে জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম। এ অবস্থায় তারা অনেকেই ডাক্তারের কাছে যাচ্ছেন।

 

এছাড়া চীনে আবারো ২৪ ঘণ্টায় আটজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ। এ নিয়ে শহরটিতে ২৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন।

ভারতে ভারতে ভারতে

দেশে করোনায় একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৮

 

 

সফলভাবে আলাদা হয়েছে লাবিবা-লামিসা

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.