Ultimate magazine theme for WordPress.

‘বিয়ের বাইরে সন্তানধারণ না করলেই পারতাম’

উত্তরখাণ্ডের মুক্তেশ্বরে আপাতত ছুটি কাটাচ্ছেন অভিনেত্রী নীনা গুপ্তা। সেখান থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘সাচ কাহু’ অর্থাৎ ‘সত্যি বলতে’ বলে একটি সিরিজ শুরু করেছেন। যেখানে নিজের মনের কথা শেয়ার করছেন অভিনেত্রী।

সোমবার সেই সিরিজের একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন নীনা। সেখানে নিজের জীবনের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী।

৬০ বছরের নীনার বক্তব্য, ‘সত্যি বলতে কি বিবাহিত পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়াবেন না’। প্রায় ২ মিনিট ৪ সেকেন্ড ধরে এমন সম্পর্কের কঠিন বাস্তবের কথাই বলেছেন নীনা।

এর আগেও ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে খুল্লমখুল্লা কথা বলেছেন নীনা। ভিভ রিচার্ডসের প্রেমিকা তথা বিশিষ্ট অভিনেত্রী নীনা গুপ্তার স্বীকারোক্তি ছিল, অতীতের কোনও সিদ্ধান্ত বদলানোর সুযোগ পেলে তিনি বিবাহবহির্ভূত সন্তানধারণের সিদ্ধান্ত বদল করতেন।

অভিনেত্রীকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, অতীতের কোন সিদ্ধান্তকে তিনি বদলাতে চান? উত্তরে নীনার স্পষ্ট বক্তব্য, ‘বিয়ের বাইরে সন্তানধারণ না করলেই পারতাম। প্রত্যেক সন্তানের বাবা-মা দু’জনকেই প্রয়োজন।’

গলায় আক্ষেপই ধরা পড়েছে। নীনা বুঝিয়ে দিয়েছেন, তার ওই সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। বছর দুয়েক আগে তিনি একবার বলেছিলেন, ‘আমি সব মহিলাকে বলতে চাই একটা কথা। যদি আপনি ভারতে থাকতে চান, সমাজে থাকতে চান, তা হলে আপনাকে বিয়ে করতেই হবে।’

আটের দশকে নীনা সম্পর্কে জড়ান ভিভের সঙ্গে। বহুচর্চিত রোমান্সের পর ১৯৮৯ সালে তাদের মেয়ে হয়। নাম রাখা হয় মাসাবা। ওই সময় সাহসী সিদ্ধান্তের জন্য অনেকে নীনাকে প্রশংসা করেন, পাশাপাশি সমালোচনাও কুড়োন তিনি।

মাসাবাকে ‘সিঙ্গল মাদার’ হিসেবেই বড় করে তোলা নীনা সিঙ্গল মাদারের কাছে বরাবরই উজ্জ্বল উদাহরণ। ষাট বছর বয়সে পৌঁছে তার সাম্প্রতিক স্বীকারোক্তিতে অনেকেই অবাক। তবে নীনা পরে বিয়ে করেন চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট বিবেক মেহরাকে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.