Ultimate magazine theme for WordPress.

স্ত্রীর পিটুনিতে জেলা আঃলীগের নেতা গুরুতর আহত

মাদারীপুর প্রতিনিধি ২২ আগষ্ট ২০২০

মাদারীপুরে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীর পিটুনিতে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াস আহম্মেদ হাওলাদার (৫০) গুরুতর জখম হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে শহরের সৈয়দারবালী এলাকায় ইলিয়াস আহম্মেদের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) রেজাউল করিম পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, প্রতিদিনের মতো গতকাল রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন ইলিয়াস আহম্মেদ হাওলাদার ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা। পারিবারিক কলহের জেরে আজ বৃহস্পতিবার ভোরের দিকে ঘরে থাকা পুঁতা দিয়ে ইলিয়াসের মাথায় আঘাত করেন তাঁর স্ত্রী মিলি। পরে রড দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করেন। সকালে গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক অখিল সরকার বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৭টার দিকে গুরুতর আঘাত নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ইলিয়াস আহম্মেদ। তাঁর মাথার তিনটি স্থানে আঘাত ছিল। হাতেও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মাথায় বেশ কয়েকটি সেলাই দিতে হয়েছে। পরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।’

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজল কৃষ্ণ দে বলেন, ‘ঘটনা শুনে আমরা হাসপাতালে যাই। পরে তাঁকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কী কারণে তাঁর স্ত্রী এ রকম করল, তা আমাদের জানা নেই। পারিবারিক কলহের জের ধরেই হয়তো এ ঘটনা ঘটেছে। তাই আমরা এ বিষয় নিয়ে মাথা ঘামাইনি।’

আজ দুপুরে ইলিয়াস আহম্মেদের বাড়িতে গিয়ে তাঁর স্ত্রী-সন্তান কাউকে পাওয়া যায়নি। গাড়ির চালকও ইলিয়াসের মামা বাড়িতে আছেন।

ইলিয়াস আহম্মেদের মামা মো. শহীদ বলেন, ‘এটা পারিবারিক ঘটনা। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দ্বন্দ্ব। ঘটনার পর থেকে ইলিয়াসের স্ত্রী তাঁর বাবার বাড়িতে আছেন।’

এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) রেজাউল করিম বলেন, ‘পারিবারিক ঝগড়া থেকে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি পারিবারিক। তাই এখনো কোনো আইনি সিদ্ধান্তে আমরা যাইনি।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.