বিক্ষোভের আগেই কিউবার প্রেসিডেন্ট আটক,গুইলারমো ফারিনাসের পরিবারে বইছে ক্ষোভের বাতাস

বিক্ষোভের আগেই কিউবার প্রেসিডেন্ট আটক,গুইলারমো ফারিনাসের পরিবারে বইছে ক্ষোভের বাতাস।

কিউবায় সাংবাদিক,মানবাধিকারকর্মী ও বিরোধী নেতা গুইলারমো ফারিনাসকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির পুলিশ। গেল শুক্রবার ফারিনাসের পরিবারের পক্ষ থেকে এ দাবি করা হয়। আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে তার গ্রেফতারের তথ্যটি জানানো হয়েছে।

 

তিনদিন পর দেশটির বিরোধী শক্তিগুলো একটি বিক্ষোভের আয়োজন করার পরিকল্পনা করেছে। যা সরকার আগেই নিষিদ্ধ করেছে। তবে সে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হওয়ার আগেই এ নেতাকে গ্রেফতারের খবর এল।

ফারিনাসের মা অ্যালিসিয়া হার্নান্দেজ বলেন, স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ১০ মিনিটের দিকে তাকে তুলে নেওয়া হয়েছে। ফারিনাস আগে থেকেই অসুস্থ। একটি অ্যাম্বুলেন্স ও টহল পুলিশ এসে তাকে আর্নালদো মিলিয়ান কাস্ত্রো হাসপাতালে নিয়ে যায় বলেও জানান তিনি।

ফারিনাসের বয়স ৫৯ বছর। তিনি একজন মনোবিজ্ঞানী, স্বাধীন সাংবাদিক ও মানবাধিকারকর্মী হিসাবে কাজ করছেন। চিন্তার স্বাধীনতার জন্য ইউরোপীয় সংসদের সাখারভ পুরস্কার-২০১০ জিতেন তিনি।

গত ২০ বছরে ফারিনাস কিউবান সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে হিসেবে ২৩টি অনশন ধর্মঘট করেছেন। যা তার স্বাস্থ্যের ওপর মারাত্মক প্রভাব ফেলেছে। তিনি কিউবার দেশপ্রেমিক ইউনিয়নের অন্যতম সদস্য। যেটি বর্তমানে দেশটিতে সবচেয়ে সক্রিয় রাজনৈতিক বিরোধী দল।

কিউবায় রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তির দাবিতে সোমবার বিরোধীদের নেতৃত্বে একটি পরিকল্পিত বিক্ষোভ আয়োজনের কথা রয়েছে। তবে তার আগেই ফারিনাসকে গ্রেফতার করা হলো।

সমাবেশটি কিউবার কমিউনিস্ট সরকার এরই মধ্যে নিষিদ্ধ করেছে। তবে আয়োজকরা যেভাবেই হোক এটি চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দেশটির সরকারি কর্তৃপক্ষ বলছে, বিক্ষোভকারীরা ওয়াশিংটনের মদদপুষ্ট। তারা সরকার উৎখাতে উসকানি দিচ্ছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.