প্রান্তিক মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় বিকাশের ১০ লাখ টাকার অনুদান

প্রান্তিক মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় বিকাশের ১০ লাখ টাকার অনুদান

প্রান্তিক মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় অবদান রাখতে দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশের ‘বুরো হেলথ কেয়ার ফাউন্ডেশেন’-এ ১০ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছে বিকাশ।

বুরো হেলথ কেয়ার ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে বুরো বাংলাদেশ গ্রামীণ ও দরিদ্র মানুষের জন্য স্বল্পমূল্যে উন্নতমানের চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দেওয়ার কাজ করছে। বিকাশের পক্ষ থেকে দেওয়া অনুদানের এ টাকা গ্রামীণ ও দরিদ্র মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় ব্যয় করা হবে।

 

সম্প্রতি ঢাকায় বুরো বাংলাদেশের প্রধান কার্যালয়ে সংস্থার পরিচালক (বিশেষ কর্মসূচি) মো. সিরাজুল ইসলাম ও পরিচালক (বুরো হেলথ কেয়ার ফাউন্ডেশন এবং বুরো ক্র্যাফট) রাহেলা জাকিরের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে এ অনুদান তুলে দেন বিকাশ এর চিফ এক্সটারনাল অ্যান্ড করপোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মেজর জেনারেল শেখ মো. মনিরুল ইসলাম (অব.) ও বিকাশের চিফ কমার্সিয়াল অফিসার আলী আহম্মেদ। এসময় বিকাশ এর অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বিকাশের মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে বিকাশে।

 

 

.……..

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বিকর মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে বশে।

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বির মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে ব

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বির মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে বিক।

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা কাশের মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে ব

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বর মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে 

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বর মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে বিক।

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বর মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে 

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বর মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে 

 

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা র মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা ব মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকাকাশের মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা  মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা ব মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে বি

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা কাশের মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে 

 

 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে ব

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা বিকাশের মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে বিকাশে।

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা  মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে 

১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের শীর্ষস্থানীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বুরো বাংলাদেশ সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ সদস্যের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। বর্তমানে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের পাশাপাশি বুরো বাংলাদেশের সব সদস্যরা তাদের সঞ্চয় স্কিমের কিস্তির টাকা  মাধ্যমেই জমা দিতে পারছেন। বুরো বাংলাদেশ দেশজুড়ে তাদের এক হাজার ৬২টি শাখায় ঋণ ও কিস্তির টাকা গ্রহণ করে থাকে

 

 

 

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.