প্রথমদিনে রাজধানীতে আটক-গ্রেফতার সাড়ে ৭শো, মামলা দেড় শতাধিক

করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমাতে সপ্তাহব্যাপী সর্বাত্মক লকডাউন শুরু হয়েছে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে। লকডাউনের প্রথম দিনে রাজধানী ঢাকায় অকারণে বাইরে বের হওয়ায় ৪৯৭ জনকে আটক এবং ২৫৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় অনেক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে জরিমানাও করা হয়েছে।

আজ সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক ও এলাকায় একযোগে অভিযান চালায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ক্রাইম ও ট্রাফিক বিভাগ। এসব অভিযানে এই আটক, গ্রেফতার ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে জরিমানা করা হয়েছে।

অকারণে বাইরে বের হয়ে আটক ৪৯৭ জনের মধ্যে ৩১৬ জনই আটক হয়েছেন তেজগাঁও এলাকা থেকে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আটক হয়েছেন মিরপুর এলাকায় ১০৫ জন। এ ছাড়াও রমনায় ৫৭ জন, ওয়ারীতে চারজন, গুলশানে ১৫ জনকে আটক হয়েছে। তবে লালবাগ, মতিঝিল ও উত্তরা এলাকা থেকে কাউকে আটক করা হয়নি।

২৫৮ জনের মধ্যে ১৩১ জনই গ্রেফতার হয়েছেন গুলশান এলাকায়। এ ছাড়াও রমনা থেকে দুজন, লালবাগে ৩৮, মতিঝিলে দুজন, ওয়ারীতে ১৯, মিরপুরে ৩০, উত্তরা এলাকা থেকে ৩৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তেজগাঁও এলাকা থেকে কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

গ্রেফতারের বিষয়ে গুলশান বিভাগের উপ কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী গণমাধ্যমে জানান, ১৩১ জনকে ডিএমপির অর্ডিনেন্স অনুযায়ী গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের আদালতে পাঠানো হবে, আদালত তাদের অপরাধ বিবেচনায় অর্থদণ্ড দিতে পারেন।

গ্রেফতারের পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি ব্যক্তি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জরিমানাও করা হয়েছে গুলশান এলাকায়। এই এলাকায় জরিমানা করা হয়েছে ১ লাখ ২ হাজার ৭ টাকা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৮ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা হয়েছে লালবাগে। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ওয়ারী বিভাগ। সেখানে জরিমানা হয়েছে ৭১ হাজার ৭০০ টাকা। এরপরই রয়েছে মতিঝিল বিভাগে। তারা জরিমানা করেছে ৬৫ হাজার ৮৫০ টাকা। এছাড়া রমনায় ৫৮ হাজার ৫০০, মিরপুরে ৫১ হাজার ৫৫০, তেজগাঁও বিভাগে ৪৭ হাজার ৩০০ এবং উত্তরা বিভাগ থেকে ১৭ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এর মধ্যে গুলশান এলাকা থেকে যাদের গ্রেফতর করা হয়েছে তাদের কোনও জরিমানা করা হয়নি। তবে সড়কে ২১টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। যেখান থেকে মোটা অংকের জরিমানা হয়েছে ৮৯ হাজার টাকা। বাকি ১৩ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা হয়েছে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে।

রাজধানীতে মোট মামলা হয়েছে ২৭৪টি। এর মধ্যে ৯৮টি মামলা হয়েছে মিরপুর বিভাগে। রমনায় ৪৫, লালবাগে ৩৭, মতিঝিলে ২৮, ওয়ারীতে ১৫, তেজগাঁওয়ে ১২, গুলশানে ২১ ও উত্তরাতে ১৮টি মামলা হয়েছে।

ডিএমপি মিরপুর বিভাগের উপ-কমিশনার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, ডিএমপি অ্যাক্টের ২৬৯ ধারা, সরকারি আইন অমান্য করা, মোবাইল কোর্ট এবং সড়ক পরিবহন আইনে এসব মামলা হয়েছে। এছাড়া গাড়ি আটক হয়েছে ছয়টি, রেকারিং করা হয়েছে ৭৭টি এবং তাৎক্ষণিকভাবে সাজা দেওয়া হয়েছে আটজনকে।

Loading...