পর্তুগালের লেমোসই জাতীয় ফুটবল দলের কোচ

 

সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য জাতীয় দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল অস্কার ব্রুজোনকে। আগামী মাসে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠেয় টুর্নামেন্টের জন্যও বাফুফের প্রথম পছন্দ ছিলেন এই স্প্যানিশ কোচ। কিন্তু টানা ১৩ মাস কাজ করায় ক্লান্ত থাকায় শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ জাতীয় দলের আর দায়িত্ব নিতে চাননি তিনি। এমন অবস্থায় কোচশূন্য হয়ে পড়ে জাতীয় দল। নতুন অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে পর্তুগালের মারিও লেমোসকে।

 

যদিও এখনো কাগজে-কলমে জেমি ডের সঙ্গে এখনো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের চুক্তি আছে। নতুন চুক্তি অনুযায়ী আগামী বছরের মাঝামাঝি পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের সঙ্গে চুক্তি করেছিলেন জেমি ডে। এ কারণেই অন্তর্বর্তীকালীন কোচ নিয়োগের পথে হাঁটছে বাফুফে।

 

 

লেমোস বাংলাদেশের ফুটবলে পরিচিত এক নাম। করোনার কারণে বাতিল হওয়া লিগ মৌসুম ধরে তিন মৌসুম যাবৎ আবাহনীর লিমিটেডের কোচের দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁর হাত ধরে আবাহনী প্রথমবারের মতো খেলেছে এএফসি কাপের আন্তআঞ্চলিক পর্বে। এবার তাঁর হাতেই তুলে দেওয়া হয়েছে জাতীয় দলকে। বাফুফে সহসভাপতি ও জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ বলেন, ‘শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য আমরা লেমোসকে কোচ হিসেবে চূড়ান্ত করেছি। ভিসা পেলেই দেশে ফিরে আসবেন। আগামী ২৫ নভেম্বর থেকে শুরু হবে জাতীয় দলের ক্যাম্প।

 

প্রধান কোচ হিসেবে লেমোস প্রথম দায়িত্ব পেলেও, জাতীয় দলের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে তাঁর। ২০১৭ সালে জাতীয় দলের ট্রেনার হিসেবেই বাংলাদেশ অধ্যায় শুরু হয়েছিল তাঁর। পরে আবাহনী তাঁকে প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়।

৮ থেকে ১৭ নভেম্বর শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত হবে প্রাইম মিনিস্টার মাহিন্দা রাজাপক্ষে চার জাতি টুর্নামেন্ট। ৮ নভেম্বর প্রথম ম্যাচেই আফ্রিকার সিশেলসের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ১১ ও ১৪ নভেম্বর যথাক্রমে মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে কলম্বোর রেসকোর্স স্টেডিয়ামে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.