পরীক্ষা কর্মদিবসে, সময়সচেতন হওয়ার পরামর্শ, মানা হবে স্বাস্থ্যবিধি

করোনা সংক্রমণ রোধে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার বিশেষ প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে কর্তৃপক্ষ। প্রতিটি কেন্দ্রে মানা হবে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি। পরীক্ষার সময় পরীক্ষাকেন্দ্রের আশপাশের যানজট নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় ট্রাফিক বিভাগের সঙ্গেও সমন্বয় করবে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

উপাচার্যদের সমন্বয়ে গঠিত ভর্তি পরীক্ষার কোর কমিটির আহ্বায়ক এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফরিদ উদ্দীন আহমেদ এসব তথ্য জানান।

উপাচার্য ফরিদ উদ্দীন আহমেদ বলেন, করোনা সংক্রমণ হঠাৎ আবার বৃদ্ধি বা করোনার তৃতীয় ঢেউ আসার আগেই আমরা পরীক্ষাগুলো নিয়ে নিতে চাই। শিক্ষার্থীরা দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষায় আছে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য। তাই একটি সুষ্ঠু, সুন্দর পরীক্ষা নেওয়ার জন্য আমরা দিনের ১৮ ঘণ্টা কাজ করে যাচ্ছি।

উপাচার্য বলেন, পরীক্ষাগুলো যেহেতু কর্মদিবসে পড়েছে, তাই শিক্ষার্থীদের সময় বিষয়ে অধিক সচেতন হতে হবে। পরীক্ষাকেন্দ্রে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই পৌঁছানোর চেষ্টা করতে হবে। ভর্তি নির্দেশনায় আমরা এক ঘণ্টা আগে পরীক্ষাকেন্দ্রে উপস্থিত হওয়ার জন্য বলেছি।’ তিনি বলেন, ‘পরীক্ষা আরম্ভ হওয়ার পরে কোনো পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষাকক্ষে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। আমরা চেষ্টা করব, যতটা সম্ভব যানজট কম রাখার ব্যবস্থা করতে। এ জন্য ট্রাফিক বিভাগের সঙ্গেও আমরা যোগাযোগ করব। উপাচার্য আরও বলেন, ‘গুচ্ছের পরীক্ষাকেন্দ্রগুলোর অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে একটি অভিজ্ঞতা হয়েছে। এ ছাড়া আমাদের পরীক্ষার জন্য সম্পূর্ণ সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.