নোয়াখালীতে এবার বিদ্যালয়ের যাওয়ার পথে ছাত্রী ঘাড়ে বখাটের আঁচড়

নোয়াখালীতে এবার বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে এক ছাত্রীর ওপর হামলা করেছে বখাটেরা। এ সময় ওই ছাত্রীর ঘাড়ে আঁচড় লাগে। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে শহরের হরিনারায়ণপুর বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ওই ঘটনার পর নবম শ্রেণির ওই ছাত্রী বাড়িতে গিয়ে অভিভাবকদের বিষয়টি জানায়। পরে ছাত্রীর মা–বাবা বিদ্যালয়ে গিয়ে প্রধান শিক্ষকের কাছে বিষয়টি জানান। প্রধান শিক্ষক তাৎক্ষণিক বিষয়টি স্থানীয় কাউন্সিলরের মাধ্যমে থানা-পুলিশকে জানান।

নোয়াখালীতে এবার বিদ্যালয়ের যাওয়ার পথে ছাত্রী ঘাড়ে বখাটের আঁচড়

এর আগে গত রোববার সদর উপজেলায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফেরার পথে ‘ব্লেড দিয়ে’ গলা কাটার চেষ্টা করে এক বখাটে। পরে ওই ছাত্রীকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ছাড়া গত বৃহস্পতিবার নোয়াখালী শহরের লক্ষ্মীনারায়ণপুর এলাকার বাসায় অষ্টম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে (১৪) গলা কেটে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর সাবেক গৃহশিক্ষক আবদুর রহিম ওরফে রনিকে (২৮) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে গত রোববার জেলা শহরের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল, সড়ক অবরোধ করে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। এসব প্রতিবাদের মধ্যেই ছাত্রীদের ওপর বখাটেদের হামলার ঘটনা ঘটল।

স্কুলছাত্রী (১৫) জানায়, আজ সকালে সে একা হেঁটে বিদ্যালয় যাচ্ছিল। আসার পথে হরিনারায়ণপুর বাজারের পূর্ব পাশে একটি রিকশা থেকে কেউ একজন তাঁর ঘাড়ে হাত দেয়। রিকশাটি দ্রুতগতিতে হরিনারায়ণপুর বাজারের দিকে চলে যায়। সে প্রথমে বিষয়টি ভালোভাবে বুঝতে পারেনি। কয়েক মিনিট পর ঘাড়ে হালকা ব্যথা হলে হাত দিয়ে দেখে রক্ত বের হয়েছে। পরে সে বাড়ি ফিরে যায়। বাড়িতে সে প্রাথমিক চিকিৎসা নেয়।

নোয়াখালীতে এবার বিদ্যালয়ের যাওয়ার পথে ছাত্রী ঘাড়ে বখাটের আঁচড়

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, ছাত্রী ও তার অভিভাবকেরা বিদ্যালয়ে এসে ঘটনা জানান। তিনি তাৎক্ষণিক স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর রতন কৃষ্ণ পালকে বিষয়টি জানান। কাউন্সিলর বিষয়টি শুনে তাৎক্ষণিক থানায় খবর দেন। পরে সুধারাম থানার ওসি এসে ছাত্রী ও তার মা-বাবাকে থানায় নিয়ে যান।

প্রধান শিক্ষক আরও বলেন, তাঁর বিদ্যালয়ের আশপাশের এলাকার পরিবেশ অত্যন্ত খারাপ। বিদ্যালয় চলাকালীন বিশেষ করে সকালে ও বিকেলে মোড়ে মোড়ে বখাটেরা আড্ডা দেয়। মাঝেমধ্যে পুলিশ এসে বখাটেদের আটক ও ধাওয়া করে। কিন্তু বখাটেদের উৎপাত কমছে না। বিষয়টি নিয়ে তিনি নিজেও সমস্যায় আছেন।

হরিনারায়ণপুর এলাকার পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর রতন কৃষ্ণ পাল বলেন, মেয়েটির বাড়ি পড়েছে কাদিরহানিফ ইউনিয়নে। সকালে স্কুলে আসার পথে একটি রিকশা থেকে কেউ একজন তার ঘাড়ে হাত দিয়েছে। পরে মেয়েটি দেখে ঘাড়ের মধ্যে আঁচড়ের দাগ। কারা মেয়েটিকে আঁচড় দিয়েছে, তা শনাক্ত করা যায়নি। পুলিশ বিষয়টি দেখছে।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, এক স্কুলছাত্রীর ঘাড়ের পেছনে কে বা কারা রিকশা দিয়ে যাওয়ার পথে হালকা আঁচড় দিয়েছে। ছাত্রী কেউ একজনের হাতের মত দেখে। এ বিষয়ে ছাত্রীর পরিবার থানায় একটি অভিযোগ করেছে। কে বা কারা ওই ঘটনাটির সঙ্গে জড়িত সেটি তাঁরা খতিয়ে দেখছেন।

 

 

এবার এবার এবার এবার

সমালোচনা সত্ত্বেও ইভিএম ব্র্যান্ডিংয়ে তৎপর ইসি

রাবি ছাত্রীর লাশ উদ্ধারের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি

Leave A Reply

Your email address will not be published.