নিউইয়র্ক সিটি নির্বাচনে বিজয়ী হলেন চিত্রনায়িকা পূর্ণিমার বোন

 

 

নিউইয়র্ক সিটি নির্বাচনে প্রথম কোনো বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এবং মুসলিম নারী হিসেবে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন শাহানা হানিফ

ব্রুকলিনের ডিস্ট্রিক্ট ৩৯ থেকে কাউন্সিলওম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

বেসরকারি ফল অনুযায়ী এরই মধ্যে বিজয়ের বার্তা পেয়ে গেছেন শাহানা। মঙ্গলবার দিনভর ভোট দিয়েছেন নিউ ইয়র্কের মানুষ। রাত ১০টার আগেই ফল পসরিষ্কার হয়ে যায়।

সিটি কর্পোরেশনের বিজয়ী শাহানা হানিফের বাড়ি চট্টগ্রামের নাজিরহাটের পূর্ব ফরহাদাবাদে।চট্টগ্রাম সমিতির সাবেক সভাপতি ও ট্রাস্টি বোর্ড চেয়ারম্যান এবং যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মোহাম্মদ হানিফের কন্যা তিনি। ঢালিউডের চিত্রনায়িকা দিলারা হানিফ পূর্ণিমার ফুফাতো বোন শাহানা হানিফ।পূর্ণিমা তার বোনের সাফল্যের এই খবরে ভীষণ আনন্দিত।
গুরুত্বপূর্ণ এই নির্বাচনে এই বিজয়ে নিউইয়র্কে বাংলাদেশি কমিউনিটির মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। বিশ্বখ্যাত নিউ ইয়র্কের কাউন্সিলম্যান পদটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই নির্বাচনে এর আগে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কেউ দলীয় মনোন্নয়ন নিশ্চিত করতে পারেনি।

ব্রুকলিনে নিজের নির্বাচনী কার্যালয়ে দেওয়া বক্তব্যে শাহানা বলেন, একজন বাংলাদেশি হিসেবে, একজন মুসলিম নারী হিসেবে আমার বিজয় বড় আমার দেশের জন্য একটি মাইলফলক। আমি বিজয়ী হয়েছি সাধারণ মানুষের পক্ষে লড়াই করার জন্যই,তাদের জন্য কাজ করার মধ্য দিয়ে সেই লড়াই চালিয়ে যাব।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী পত্রিকা নিউ ইয়র্ক টাইমসসহ বিভিন্ন গণমাধ্যম শাহানা হানিফের বিজয়ের সংবাদ অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করেছে। নিউইয়র্ক টাইমস লিখেছে, ‘একজন মুসলিম নারী হিসেবে প্রথমবারের মতো নিউ ইয়র্কের কাউন্সিলওম্যান হয়ে ইতিহাস গড়লেন শাহানা হানিফ।’

অন্যদিকে, কুইন্সের সিভিল কোর্টের বিচারপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন আরেক বাংলাদেশি সোমা সাঈদ। বিজয়ী হওয়ার পর সোমা সাঈদ কালের কণ্ঠকে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, ‘এই জয় আমার একার নয়। পুরো অভিবাসী সমাজের জয়। বাংলাদেশি হিসেবে আমি গর্বিত। এখন ন্যায়ের পক্ষে নিজের প্রতিশ্রুতি পূরণে কাজ করে যেতে চাই।’

নিউইয়র্ক
বোনের বিজয়ে খুশিতে মাতোয়ারা পুর্ণিমা

সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলেন অনন্ত

সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলেন অনন্ত
সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলেন অনন্ত

কথা ছিল অক্টোবরের শেষ সপ্তাহ থেকে তুরস্কে নতুন সিনেমা ‘নেত্রী : দ্য লিডার’র দ্বিতীয় লটের শুটিং শুরু করবেন অনন্ত। সে লক্ষ্যে প্রস্তুতিও নিয়েছিলেন। শুটিং লোকেশন দেখতে এ সিনেমার নায়িকা স্ত্রী বর্ষাকে নিয়ে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি তুরস্কেও গিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখেন ভিন্ন পরিবেশ। দেশটিতে এরই মধ্যে শীতের প্রকোপ বেড়েছে। দিন কয়েকের মধ্যে বরফ পড়াও শুরু হবে। শুটিংয়ের জন্য যে সময় নির্ধারণ করা ছিল সে সময় অর্থাৎ নভেম্বর থেকে তুষারপাত হবে। তাই প্রচণ্ড ঠান্ডার মধ্যে শুটিং করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন অনন্ত। এ কারণে আপাতত তুরস্কের শুটিং শিডিউল বাতিল করেছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে অনন্ত বলেন, ‘এর আগে অন্য একটি সিনেমার শুটিংয়ে আমরা তুষারপাতের শিকার হয়েছি। এ সময় শুটিং করা বেশ মুশকিল। তাই নভেম্বরে আর তুরস্কে শুটিং করছি না। বরং এ সময়ের মধ্যে আমরা বাংলাদেশের পার্ট শেষ করব। আগামী মার্চ নাগাদ তুরস্কে শীতের প্রকোপ কমে গেলে সেখানে যাব শুটিং করতে।’ তুরস্ক ও বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘নেত্রী : দ্য লিডার’ সিনেমাটি পরিচালনা করছেন দক্ষিণ ভারতীয় নির্মাতা উপেন্দ্র মাধব। এ সিনেমায় দক্ষিণ ভারতের প্রদীপ রাওয়াত, তরুণ অরোরা ও কবির দুহান সিং অভিনয় করছেন। পাশাপাশি রয়েছেন তুরস্কের কয়েকজন জনপ্রিয় তারকাও। এ সিনেমার নাম ভূমিকা অর্থাৎ নেত্রীর চরিত্রে অভিনয় করছেন চিত্রনায়িকা বর্ষা। অনন্তকে দেখা যাবে তার বডিগার্ডের চরিত্রে। প্রসঙ্গত, এর আগে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ভারতের হায়দ্রাবাদে রামুজি ফিল্ম সিটিতে ‘নেত্রী : দ্য লিডার’ সিনেমার প্রথম লটের শুটিং করেছেন অনন্ত বর্ষা। এ তারকা দম্পতির অভিনীত ‘দিন : দ্য ডে’ নামে একটি সিনেমা মুক্তি পাবে ২৪ ডিসেম্বর। ইরানের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এ সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন ইরানি নির্মাতা মুস্তফা অতাশ জমজম।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বায়োপসি রিপোর্ট পাওয়া গেছে। সেই অনুযায়ী চিকিৎসকেরা তাঁর চিকিৎসা দিচ্ছেন। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি আছেন তিনি। গত ২৫ অক্টোবর খালেদা জিয়ার শরীরে অস্ত্রোপচার করা হয়। ওই দিন বিএনপি চেয়ারপারসনের ব্যক্তিগত চিকিৎসক এ জেড এম জাহিদ হোসেন গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, ‘ওনার (খালেদা জিয়া) শরীরের এক জায়গায় ছোট একটা লাম্প আছে। এই লাম্পের ন্যাচার অব অরিজিন জানতে হলে বায়োপসি করা প্রয়োজন। সে জন্য ওনার বায়োপসির জন্য অপারেশন করা হয়েছে।

খালেদা জিয়া হাসপাতালে ভর্তির পর তাঁর দেখাশোনার জন্য যুক্তরাজ্য থেকে দেশে এসেছেন প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী সিঁথি রহমান। আজ দুপুরে বিএনপির একটি সূত্র জানিয়েছে, খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বিএনপি চেয়ারপারসন চলতি বছরের এপ্রিলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। করোনা–পরবর্তী জটিলতা নিয়ে তিনি ৬ মে থেকে প্রায় এক মাস এভারকেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি ছিলেন।

আফগানিস্তানের নানগারহার প্রদেশে একসঙ্গে চার জুটির বিয়ে হচ্ছিল। বিয়ে উপলক্ষে সেখানে বাজছিল গান। সেই গান বন্ধ করতে বন্দুকধারীরা হামলা করে। হামলায় অন্তত দুজন নিহত হন। আহত হন ১০ জন। স্থানীয় কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আজ রোববার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়। হামলাকারী বন্দুকধারীরা নিজেদের তালেবানের সদস্য বলে পরিচয় দিয়েছে। তবে হামলাকারীদের এই দাবি অস্বীকার করেছেন তালেবানের এক মুখপাত্র।

গত শুক্রবার রাতে এই যৌথ বিয়ের অনুষ্ঠান হচ্ছিল। সেদিন রাতে বিয়ের এ অনুষ্ঠানে হামলাকারী তিন বন্দুকধারীর মধ্যে দুজনকে গ্রেপ্তার করার কথা জানিয়েছেন তালেবানের এক মুখপাত্র। তাঁর ভাষ্য, বন্দুকধারীরা তালেবানের হয়ে বিয়েবাড়িতে হামলা চালায়নি। এক প্রত্যক্ষদর্শী বিবিসিকে বলেন, শুক্রবার রাতে নানগারহার প্রদেশের সুরখ রোড জেলায় একসঙ্গে চার জুটির বিয়ে হচ্ছিল। রাতে হঠাৎ বন্দুকধারীরা বিয়েবাড়িতে হামলা করে। এতে হতাহত হওয়ার এ ঘটনা ঘটে।

একই প্রত্যক্ষদর্শীর ভাষ্য, নারীদের জন্য সংরক্ষিত একটি স্থানে রেকর্ড করা গান বাজানোর জন্য স্থানীয় এক তালেবান নেতার কাছ থেকে অনুমতি নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু মধ্যরাতে হঠাৎ একদল বন্দুকধারী জোর করে বিয়েবাড়িতে ঢুকে পড়ে। তারা লাউডস্পিকার ভাঙার চেষ্টা করে। অতিথিরা বাধা দিলে বন্দুকধারীরা গুলি চালায়। তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, বিয়েবাড়িতে হামলার ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। গত আগস্টে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। পরের মাসে তারা সরকার গঠনের ঘোষণা দেয়।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানের ক্ষমতায় ছিল তালেবান। তখন তারা দেশটিতে গান নিষিদ্ধ করেছিল। তবে এবার তারা ক্ষমতায় এসে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো ডিক্রি জারি করেনি। আফগানিস্তানে তালেবানের প্রতিপক্ষ জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। নানগারহার প্রদেশে আইএস সক্রিয় রয়েছে। আগে এ প্রদেশে একাধিক হামলার দায় নিয়েছে আইএস।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মনে করেন, তারা পরমতসহিষ্ণু বলেই বিএনপি এখনো রাজনীতি করতে পারছে। তিনি বলেন, দেশে গণতন্ত্র আছে বলেই সরকারের সমালোচনা করতে পারছে বিএনপি। তারা বক্তৃতা, বিবৃতি, মানববন্ধন, আলোচনা, টকশোসহ নানা উপায়ে সমালোচনা করছে। এ জন্য সরকার তো তাদের কোনো শাস্তি দিচ্ছে না।
বিএনপি আন্দোলন ও নির্বাচনে ব্যর্থ হয়ে এখন সাম্প্রদায়িক শক্তিকে দেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে উসকানি দিচ্ছে বলেও দাবি করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বহু বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে শেখ হাসিনা গণতন্ত্রকে সঠিক পথে এনেছেন। অন্যদিকে বিএনপি তাদের অগণতান্ত্রিক আচরণ এবং ষড়যন্ত্রের রাজনীতি দিয়ে গণতন্ত্র বিকাশে পদে পদে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে।
আজ শনিবার নিজের সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

সরকারের পায়ের নিচে নাকি মাটি নেই —বিএনপি নেতারা এক যুগ ধরে এমন কথা বলে আসছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রকৃতপক্ষে সরকার নয়, বিএনপির পায়ের নিচেই মাটি নেই। তাদের পায়ের নিচে মাটি থাকলে তো তারা রাজপথে নামত, নির্বাচনেও থাকত। তিনি বলেন, নেতিবাচক ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতির জন্য বিএনপির পায়ের নিচে মাটি নেই। তাই তারা শিকড় থেকে বিচ্ছিন্ন এবং নির্বাচনবিমুখ। ১৫ ফেব্রুয়ারির ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে বিএনপিই গণতন্ত্রকে বঙ্গোপসাগরে ফেলতে চেয়েছিল উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সোয়া এক কোটি ভুয়া ভোটার সৃষ্টি করে বিএনপিই গণতন্ত্রকে ধূলিসাৎ করতে চেয়েছিল। এমনকি বিএনপি সংবিধান থেকে গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের মূলোৎপাটনও করেছে

 

নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক

নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক

নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক নিউইয়র্ক

 

 

দুঃসংবাদ দিলেন বলিউড নায়িকা ঊর্মিলা

 

আরিয়ানের জন্য যা করলেন শাহরুখ ভক্তরা

মান্নাতে আরিয়ানের ভক্তদের প্রচণ্ড ভিড়ে বহু মোবাইল চুরি

Leave A Reply

Your email address will not be published.