দিল্লিতে শিশু ধর্ষণ: সিসিটিভি ফুটেজ দেখে সন্দেহভাজন গ্রেপ্তার

ভারতের দিল্লিতে ছয় বছর বয়সী শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় এক সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তাঁকে শনাক্ত করা হয়েছিল। আজ রোববার হরিয়ানা রাজ্যের রোহটাকের কালানৌর এলাকা থেকে তাঁকে আটক করে পুলিশ। এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

ধর্ষণের শিকার ওই শিশুর বাবা একজন দিনমজুর। পরিবার জানায়, গত শুক্রবার পার্শ্ববর্তী এলাকায় একটি দাওয়াত অনুষ্ঠানে যায় শিশুটি। সেখান থেকে আহত অবস্থায় বাড়িতে ফেরে। তাঁর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। হাসপাতালে নেওয়ার পর পরিবার জানতে পারে শিশুটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে তাকে।

সিসিটিভির ফুটেজে ওই মেয়েটির সঙ্গে সন্দেহভাজন তরুণকে দেখা গেছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, ওই সন্দেহভাজন ব্যক্তি অনুসরণ করছে শিশুকে। সন্দেহভাজনকে শনাক্ত করতে শতাধিক সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ যাচাই করে পুলিশ। শেষ পর্যন্ত তাঁর একটি ছবি পাওয়া যায়। পুলিশ জানিয়েছে, সন্দেহভাজনের নাম সুরজ। তার বয়স ২০ বছর। তিনি দিল্লির রঘুবির এলাকার বাসিন্দা। এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই শিশুকে আগে থেকে চিনতেন না অভিযুক্ত তরুণ। তিনি ওই এলাকার বাসিন্দাও নন।

এর আগেও অপর এক শিশুকে যৌন হয়রানির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন তিনি।
সম্প্রতি দিল্লির দক্ষিণে কোতলা মোবারকপুর এলাকায় চাচাতো ভাইয়ের দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয় ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরী। এর কয়েক দিনের মাথায় ভারতের রাজধানীতে আবারও ধর্ষণের ঘটনা ঘটল। ছয় বছর বয়সী ওই শিশুটিকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা করা হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.