টেকসই উন্নয়নের জন্য জ্বালানির টেকসই সরবরাহ অপরিহার্য : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, টেকসই উন্নয়নের জন্য জ্বালানির টেকসই সরবরাহ অপরিহার্য। সাশ্রয়ী, নির্ভরযোগ্য এবং টেকসই জ্বালানির প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করতে হলে সহযোগিতার ক্ষেত্র বাড়াতে হবে।

 

বিমসটেক প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করে সদস্য দেশগুলো নিজেদের অর্থনৈতিক ও কারিগরি অবস্থার উন্নতি করতে পারবে, বিদ্যমান চ্যালেঞ্জগুলো কাটিয়ে উঠে চ্যালেঞ্জকে সুযোগে পরিণত করতে পারবে। আজ বুধবার ভার্চুয়ালি বিমসটেক জ্বালানিমন্ত্রীদের তৃতীয় সভায় বক্তব্যকালে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানি করছে, নেপাল থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত, ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির জন্য সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বাংলাদেশ আঞ্চলিক ও উপ-আঞ্চলিক সহযোগিতাকে সব সময়ই গুরুত্ব দেয়। আঞ্চলিক প্রবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধি বৃদ্ধি করতে বিমসটেকের সহযোগিতা বাড়াতে হবে। সমস্যাগুলো দ্রুত, সমষ্টিগত এবং দৃঢ়তার সঙ্গে সমাধানের উদ্যোগ নিতে হবে।

 

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, নিয়মিত বৈঠক, বার্ষিক ইভেন্ট কেলেন্ডার, ই-লাইব্রেরি, অভিজ্ঞতা বিনিময় ও প্রশিক্ষণ বিমসটেককে আরো গতিশীল করবে। বিমসটেকের জ্বালানিমন্ত্রী পর্যায়ের তৃতীয় সভায় বিমসটেক গ্রিড ইন্টারকানেকশন, এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংকের সহায়তায় বিমসটেক গ্রিড ইন্টারকানেকশন মহাপরিকল্পনা, বিদ্যুৎ সঞ্চালন, বিনিময় ও মূল্য, জ্বালানি সহযোগিতার জন্য পরিকল্পনা, বিমসটেক জ্বালানি কেন্দ্র স্থাপন ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

 

নেপালের জ্বালানি পানিসম্পদ ও সেচমন্ত্রী ফামফা ভূশালের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল এই অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে ভুটানের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব দাশু কারমা শেরি়ং, ভারতের বিদ্যুৎমন্ত্রী আর কে সিং, মিয়ানমারের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রী ইয় অং থান ও, শ্রীলঙ্কার বিদ্যুৎসচিব ওয়াসানথা পেরেরা, থাইল্যান্ডের জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী সচিব কুলিত সোমবাতশিরি ও বিমসটেকের মহাসচিব তেঞ্জিন লেকফিল বক্তব্য দেন।

 

ভারতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বেড়েছে ৯০…

ইউক্রেনে পূর্ণ শক্তির হামলা শুরু করেছে রাশিয়া :জেলেনস্কি

Leave A Reply

Your email address will not be published.