Ultimate magazine theme for WordPress.

সর্দার ধরতে শ্রমিককে শেকলে বেঁধে নির্যাতন!

নাটোরের গুরুদাসপুরে রাম বসাক (৩৫) নামের এক ইটভাটা শ্রমিককে শিকলে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। গুরুদাসপুরের মেসার্স এএসবি ব্রিকস নামের ইটভাটার একটি গোপন কক্ষে আটকে রেখে তাকে তিনদিন ধরে নির্যাতন চালানো হয়। ভাটা মালিক আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহিম মোল্লার ছেলে আলমগীর মোল্লা ও তার ভাতিজা ছাবলু যৌথভাবে ওই নির্যাতন চালিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে নির্যাতিত রাম বসাকের পিতা ছুটু বসাক গুরুদাসপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিলেও পুলিশ দুপুর ১২টা পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়নি।

নির্যাতনের শিকার শ্রমিক রাম বসাক জানান- তিনি উপজেলার শাহাপুর গ্রামের আ-লীগ নেতা আব্দুর রহিম মোল্লার ইটভাটায় মাটি তৈরির কাজ করেন। অভাবে পড়ে বর্ষা মওসুমে ১৫ হাজার টাকার অগ্রিম শ্রম বিক্রি করে ছিলেন তিনি। তাও সিরাজুল ইসলাম নামের এক সর্দারের মাধ্যমে। চার মাস আগে কাজ শুরু করে ১৫ হাজার টাকা শোধ করেছেন তিনি। কিন্তু সর্দার সিরাজুলসহ কিছু শ্রমিক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে শিকলবন্দি করে নির্যাতন করা হচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- গুরুদাসপুরের শাহাপুর গ্রামে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহিম মোল্লার মেসার্স এএসবি ব্রিকস নামের একটি অবৈধ ইটভাটা রয়েছে। সেখানেই অগ্রিম বিক্রি করা শ্রম কাজের মাধ্যমে পরিশোধ করছিলেন পাশ্ববর্তী তাড়াশ উপজেলার ছুটু বসাকের ছেলে রাম বসাক। ওই উপজেলারই শ্রীকৃষ্ণপুর গ্রামের বাসিন্দা সিরাজুল ইসলাম এই ইটভাটার শ্রমিক সর্দারের দায়িত্ব পালন করছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.