Ultimate magazine theme for WordPress.

বাংলালিংক এসডিজি হ্যাকাথন ”কোড ফর অ্যা কজ” ২.০ অনুষ্ঠিত

উদ্ভাবন ও প্রযুক্তিতে আগ্রহী তরুণদের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোলস্‌) সাথে সম্পর্কযুক্ত বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক সমস্যার ডিজিটাল সমাধানে উৎসাহ দেওয়ার লক্ষ্যে আয়োজিত বাংলালিংক এসডিজি হ্যাকাথন “কোড ফর অ্যা কজ”-এর দ্বিতীয় আসর সম্পন্ন হয়েছে।

২৪ ঘণ্টাব্যাপী প্রতিযোগিতাপূর্ণ এই হ্যাকাথন শেষে সেরা ৩টি দলের নাম ঘোষণা করে পুরস্কার প্রদান করা হয়। উক্ত আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান, বাংলালিংক-এর চিফ এথিক্স অ্যান্ড কমপ্লায়েন্স অফিসার মুনিরুজ্জামান শেখ ও প্রতিষ্ঠানটির অন্যান্য উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা।

আগ্রহী তরুণরা অনলাইন সাবমিশনের মাধ্যমে বাংলালিংক এসডিজি হ্যাকাথন-এ অংশগ্রহণ করে। অংশগ্রহণকারীদের ডিজিটাল পরিকল্পনার কার্যকারিতার ভিত্তিতে নির্বাচিত ৩ সদস্য বিশিষ্ট ২৫টি দলহ্যাকাথনে অংশগ্রহণ করে কর্মসংস্থান, মানসম্মত শিক্ষা, জলবায়ু ও লৈঙ্গিক সমতা বিষয়ক বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে সেগুলি উপস্থাপন করে। টিম কোয়ার্কিবিটস্‌, টিম বিনটএক্স ও টিম এরিয়াল এক্স নারীদের জন্য চ্যাটবোটভিত্তিক আইনগত সহযোগিতা, শিশুদের জন্য ডিজিটাল শিক্ষা ও ড্রোনভিত্তিক বীজবপন পদ্ধতির উপর পরিকল্পনা উপস্থাপন করে যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে।

বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান বলেন, “বাংলালিংক এসডিজি হ্যাকথনের দ্বিতীয় আসরের আয়োজন করতে পেরে আমরা আনন্দিত। আগ্রহীদের প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনের মাধ্যমে এসডিজি-এর সাথে সম্পর্কিত বিশেষ কিছু আর্থ-সামাজিক সমস্যা সমাধানের সুযোগ দিতে আমরা বিশেষ এই প্ল্যাটফর্ম চালু করেছিলাম। হ্যাকাথনে অংশগ্রহণকারীরা যেসব ডিজিটাল পরিকল্পনা প্রস্তুত করেছে সেগুলিতে সমস্যাগুলি সমাধানের বিভিন্ন নতুন পদ্ধতি পরিলক্ষিত হয়। দেশের সম্ভাবনাময় তরুণদের ক্ষমতায়নে আমাদের এ ধরনের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আমরা বিশ্বাস করি, ডিজিটাল উদ্যোগের মাধ্যমে আমাদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের কার্যক্রমে তাদের অভিনব চিন্তা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে।”

উল্লেখ্য, গত বছর বাংলালিংক এসডিজি হ্যাকাথন-এর প্রথম আসর অনুষ্ঠিত হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.