Ultimate magazine theme for WordPress.

নেত্রকোণায় এডিস মশাসহ লার্ভা : টায়ার মালিককে জরিমানা

নেত্রকোণা সদরের বনুয়াপাড়া এলাকায় জমিয়ে রাখা পুুুরাতন টায়ারের ভেতরে এডিস মশা ও লার্ভা পাওয়ায় টায়ার মালিককে জরিমানা করা হয়েছে।

লার্ভার পর নেত্রকোণায় এই প্রথম একসাথে চব্বিশটি টায়ারের ভেতরে এডিস মশার সন্ধান পেয়েছে ‘এডিস মশা ও লার্ভা সনাক্তকরণ টিম’।

রবিবার (২৫ আগস্ট) বিকেলে সদরের বনুয়াপাড়ার মদন ও কেন্দুয়া বাস স্টেশনে এই মশা, লার্ভা সনাক্ত হয়।

পরে টায়ার মালিক মো. খায়রুল ইসলামকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। বাধা উপেক্ষা করেও জনসম্মুখে টায়ারগুলো পুড়িয়ে দেয়া হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাখাওয়াত জামিল সৈকত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জরিমানা আদায় করেন।

এসময়, জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মো. আব্দুল হক, জেলা সিভিল সার্জন অফিসের সহকারী কীটতত্ত্ববিদ মঞ্জুরুল হকসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

স্যানিটারি ইন্সপেক্টর আব্দুল জানান, এর আগে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলেও কোথাও মশা পাওয়া যায়নি।জেলার দশ উপজেলার মধ্যে এই প্রথম বনুয়াপাড়ায় এডিস মশা পেয়ে ও পরিমাণ দেখে মনে হয়েছে এলাকাটি এডিস মশা তৈরির কারখানা। অপরিচ্ছন্ন পরিবেশের জন্যই এমনটি হয়েছে যা প্রত্যেকের জীবনের জন্য হুমকি। চব্বিশটি টায়ারের ভেতর থেকে এডিস মশা ও লার্ভা সনাক্ত করা হয়।

তিনি আরও জানান, এডিস মশা ও লার্ভা সনাক্তকরণে জেলার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. নিলোৎপল তালুকদারকে প্রধান করে নয় সদস্য বিশিষ্ট টিম গঠন করা হয়েছে। টিমের পক্ষ থেকে প্রতিদিন জেলার বিভিন্নস্থানে কাজ করা হচ্ছে। সনাক্তকরণ কাজের পাশাপাশি মানুষকে সচেতন করা হচ্ছে।

নেত্রকোণার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মুহাম্মদ আরিফুল ইসলাম জানান, ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও সচেতনতার লক্ষ্যে নিরলস পরিশ্রম করছে জেলা প্রশাসন। চলছে পরিচ্ছন্নতা অভিযান। আশা করা যায় পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা ও সচেতনতার মাধ্যমেই ডেঙ্গু সমস্যা অনেকটা মোকাবেলা করা সম্ভব।

Leave A Reply

Your email address will not be published.