Ultimate magazine theme for WordPress.

দ্বিতীয় বর্ষে পা দিল অনলাইন বুকশপ দিয়াশলাই

যেখানে সভ্যতার আশীর্বাদ বিদ্যুৎ পৌঁছায়নি মানুষের হাতের নাগালে, যেখানে সন্ধ্যার নিমগ্ন অন্ধকারে গ্রাম্যবধূরা একটুখানি আলোর জন্য হাতড়ে বেড়ায় দিয়াশাই। সেসব এলাকায় বই-তৃষাতুর পাঠকের দোরগোড়ায় বই পৌঁছে দেবার এক মহান ব্রত নিয়ে জন্ম নেয় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং চুয়েটের শিক্ষার্থীদের যৌথ উদ্যোগে অনলাইন বুকশপ “দিয়াশলাই”।

শনিবার (০১ ফেব্রুয়ারি) হাঁটি হাঁটি পা পা করে সেই দিয়াশলাই বই পোকাদের মনোরঞ্জন করে পদার্পণ করেছে দ্বিতীয় বর্ষে। দিয়াশলাই এর বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সন্ধ্যায় নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে দিয়াশলাই পরিবার আয়োজন করে আলোচনা সভা ও সাহিত্য আড্ডা। এতে যোগ দেন স্বনামধন্য কথাসাহিত্যিক মহি মুহাম্মদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুহাম্মদ শফিউর রহমান চৌধুরী এবং চুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সঞ্জয় দাস। পাঠক বোদ্ধা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মিঠু মুহাম্মদসহ দিয়াশলাই পরিবারের সকল তরুণ সদস্যরা।

অনুষ্ঠানে আলোচকরা বলেন, ভালো মানের প্রকাশনী এবং বইয়ের গুণগত মান নিশ্চিত করা জরুরি। সেবার মানসে এগিয়ে যেতে হবে। একদিন সফলতার গন্তব্যে নিশ্চয় পৌঁছাতে পারবে তোমরা।

আলোচকরা আরো বলেন, স্কুলে স্কুলে, ডিপার্টমেন্টে ডিপার্টমেন্টে মিনি বুকফেয়ারের আয়োজন করা যায়। এতে পাঠকেরাও যথাযথ বইয়ের সন্ধান পাবে এবং দিয়াশলাইয়েরও প্রমোশন হবে।

প্রসঙ্গত, দিয়াশলাই পরিবারের সবাই বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক শ্রেণীতে অধ্যয়নরত। তাদের সবারই ইচ্ছে অন্তত প্রতিটা ঘরের বারান্দায় একটি একটি গ্রন্থাগার শোভা পাবে এবং বইয়ের গন্ধ কড়া নাড়বে পাঠকের দরোজায়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.