Ultimate magazine theme for WordPress.

দাবি আদায় না হলে স্বদেশে ফিরবো না: রোহিঙ্গাদের হুঁশিয়ারি

আমরা বাংলাদেশে নয়, রাখাইনে থাকতে চাই,’ ‘আমরা আমাদের দেশের নাগরিকত্ব চাই’ সহ নানা স্লোগানে রোহিঙ্গা গণহত্যা দিবস পালন করেছে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা। খন্ড খন্ড মিছিল  নিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সড়কে বিভিন্ন শ্লোগানে মুখরিত করে তুলে। এ সময় রোহিঙ্গা নেতা, শিশু ও কিশোরেরা উত্থাপিত দাবি আদায় না হলে স্বদেশে ফিরে যাবে না বলে হুঁশিয়ারি দেয়। 

২৫ আগস্ট, রোহিঙ্গা গণহত্যা দিবস। ২০১৭ সালের এই দিনে সেনাবাহিনীর নিপীড়নের মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেন মিয়ানমারের সাড়ে ১১ লাখ রোহিঙ্গা। শরণার্থী জীবনের দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে আজ রবিবার (২৫ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে উখিয়ার মধুরছড়া এক্সটেনশন-৪ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের খোলা মাঠে সমাবেশ করেছেন অন্তত ৫০ হাজার রোহিঙ্গা।

উপজেলার রইক্ষ্যং ক্যাম্পে দিবসটি উপলক্ষ্যে বিক্ষোভ মিছিল করেছে আশ্রয় রোহিঙ্গারা। খন্ড খন্ড মিছিল  নিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সড়কে বিভিন্ন শ্লোগানে মুখরিত করে তুলে। সকাল ১০টায় টেকনাফের ঊনছিপ্রাং রইক্ষ্যং পুটিবনিয়া ক্যাম্প হতে রোহিঙ্গা মাঝি, শিশু-কিশোরদের নিয়ে বিশাল মিছিল বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন−আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস’র চেয়ারম্যান মুহিব উল্লাহ, মাস্টার আবদুর রহিম, মৌলভী ছৈয়দ উল্লাহ ও রোহিঙ্গা নারী নেত্রী হামিদা বেগমসহ অনেকেই। 

সমাবেশে বক্তারা গত ২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইনে গণহত্যা, ধর্ষণসহ বর্বর নির্যাতন এবং জড়িত সেনাবাহিনী ও উগ্রপন্থী মগদের আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের দাবি জানান। একই সঙ্গে রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরার আকুতি জানান। এজন্য বিশ্ববাসীকে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারের নাগরিক মর্যাদাসহ দাবিকৃত পাঁচটি শর্ত মেনে নেওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে মিয়ানমার সরকারকে জোরালোভাবে চাপ দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়। 

Leave A Reply

Your email address will not be published.