Ultimate magazine theme for WordPress.

তারুণ্য ধরে রাখতে ডাবের পানি

ডাবের পানি নানা ধরনের রোগ প্রতিরোধ করে। দূর করে প্রস্রাবের ইনফেকশন। এছাড়াও দীর্ঘ সময় তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করে। জীবনকে করে সজীব ও প্রাণবন্ত। এজন্য নিয়মিত ডাবের পানি পান করার পরামর্শ পুষ্টিবিদদের।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেন, সুস্থ থাকতে সবারই পটাশিয়াম প্রয়োজন। আর পটাসিয়ামের বড় উৎস হলো ডাবের পানি। দৈনিক না হলেও সপ্তাহে অন্তত দু’গ্লাস ডাবের পানি পান করা উচিত। ডাবের পানিতে পটাশিয়াম ছাড়াও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, অ্যামিনো অ্যাসিড, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ভিটামিন সি, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাংগানিজ ও জিংক রয়েছে।

তাই শরীর সুস্থ রাখতে নিয়মিত ডাবের পানি পান করা উচিত। নিয়মিত ডাবের পানি পান করলে যেসব উপকারিতা। দেখে নিতে পারেন-

• ডাবের পানিতে অ্যান্টিএজিং উপাদান থাকায় শরীরের কোষকে বুড়িয়ে যেতে দেয় না। তাই সহজে
বয়সের ছাপও পড়ে না। তারুণ্য ধরে রাখে দীর্ঘদিন।

• এটি ডিহাইড্রেশন বা শরীরে পানির ঘাটতি দূর করে ভারসাম্য বজায় রাখে।

• ডাবের পানি রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ কম থাকে। ফলে, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে।

• এই পানি ত্বকের তৈলাক্তভাব, ব্রণ, রোদে পোড়া দাগ দূর করে।

• শরীরের জন্য উপকারী কোলেস্টেরলের পরিমাণ বাড়িয়ে হঠাৎ হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায় ডাবের প্রাকৃতিক পানি।

• ক্লান্তি দূর করে কর্মশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

• হজম ক্ষমতা বাড়ায় এবং ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে।

• ডাবের পানিকে খাবার স্যালাইনের বিকল্প হিসেবেও ব্যবহার করা যায়।

• থাইরয়েড হরমোনের উৎপাদন বাড়ায়।

• রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

• প্রস্রাবের ইনফেকশন দূর করে।

শীত বিদায় নিয়ে বসন্ত এসেছে। এই সময়ে শরীরের ব্যাপারে আরও যত্নবান হওয়া উচিত। তাই তৃষ্ণা মেটাতে কোমল পানীর পরিবর্তে ডাবের পানি পান করা যেতে পারে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.