চ্যাম্পিয়নের মতোই শুরু বাংলাদেশের মেয়েদের

নারুয়েমল চাইওয়াই এর সিদ্ধান্তটা অবাক করার মতো। সকাল ৯টায় শুরু হতে যাওয়া ম্যাচে থাইল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক টস জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিলেন! তখনই মোটামুটি নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল থাই মেয়েদের বিপদে পড়ার সম্ভাবনাই বেশি।

মাঠেও দাপট দেখিয়ে একপেশে জয় তুলে নেয় গতবারের চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েরা।

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের দুই নম্বর মাঠে আজ এই দুই দলের ম্যাচ দিয়ে নারী এশিয়া কাপের উদ্বোধন হয়ে গেল। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বেলুন উড়িয়ে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন। ম্যাচে বাংলাদেশের শুরুটা হয় দুর্দান্ত।

চ্যাম্পিয়নের মতোই শুরু বাংলাদেশের মেয়েদের

সকালের কন্ডিশনে বাংলাদেশের মেয়েদের স্পিনে কোনো জবাব খুঁজে পায়নি থাই মেয়েরা। আগে ব্যাট করে ১৯.৪ ওভারে ৮২ রানে অলআউট হয় থাইল্যান্ড। বাংলাদেশও ৮.২ ওভার হাতে রেখে ৯ উইকেটের বিশাল জয়ে এবারের এশিয়া কাপ শুরু করল চ্যাম্পিয়নের মতোই।

টস জিতে যে ব্যাটিং নেওয়ার সিদ্ধান্তটা ঠিক ছিল না, সেটি প্রমাণ হয়ে যায় বাংলাদেশের রান তাড়ায়। স্কোরবোর্ডে লক্ষ্য ছোট। কিন্তু বাংলাদেশ দলের ওপেনার শামিমা সুলতানা ৩০ বলে ৪৯ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে ম্যাচটা পাওয়ারপ্লেতেই শেষ করে দেন। তাঁর ইনিংসে চার ছিল ১০টি।

ডিপ মিড উইকেটে স্লগ সুইপ করতে গিয়ে শামিমা বোল্ড হন ইনিংসের নবম ওভারে প্রথম বলে। এরপর বাকি পথটা ফারজানা হক ও নিগার সুলতানা পাড়ি দেন সহজেই। ২৯ বল খেলে ২৬ রানে অপরাজিত ছিলেন ফারজানা, নিগার ১১ বল খেলে ১০ রানে অপরাজিত ছিলেন।

চ্যাম্পিয়নের মতোই শুরু বাংলাদেশের মেয়েদের

জয়টা এসেছে মূলত স্পিন বোলিংয়ে। থাইল্যান্ডের ইনিংসে পেসার জাহানারা আলম মাত্র দুই ওভার করেছেন। পাঁচ স্পিনার মিলে বাকি ওভারগুলো করেছেন দাপটের সঙ্গে। এতটাই যে থাইল্যান্ড ইনিংসে প্রথম চার এসেছে নবম ওভারে। নাত্তাখান চান্থাম (২০) ও পানিতা মায়া (২৬) ছাড়া কারও ইনিংস বিশের ঘরেও যায়নি।

বাংলাদেশ দলের স্পিনারদের প্রত্যেকেই উইকেটের দেখা পেয়েছেন। ৩ ওভারে মাত্র ৯ রান দেওয়া রুমানা আহমেদ সর্বোচ্চ ৩ উইকেট শিকার করেন। সোহেলি আক্তার, সানজিদা আক্তার ও নাহিদা আক্তার ২টি করে উইকেট নেন। ১ উইকেট নিয়েছেন আরেক স্পিনার সালমা খাতুন।

 

 

 

চ্যাম্পি

আবারও মালদ্বীপের লিগে খেলতে গেলেন সাবিনা

হকি নিয়ে মাহমুদউল্লাহর স্মৃতি, খেললে যে পজিশন হতো নুরুলের

Leave A Reply

Your email address will not be published.