চৌহালীর দক্ষিনাঞ্চলে এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র দাবি; ভারপ্রাপ্ত ইউএনও’র স্কুল পরিদর্শন  

চৌহালী প্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার দক্ষিণ অঞ্চল তথা খাষপুখুরিয়া, বাঘুটিয়া ও উমারপুর ইউনিয়নের মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের এসএসসি পরীক্ষার জন্য নতুন কেন্দ্র স্থাপনের দাবির প্রেক্ষিতে (২৩শে নভেম্বর) বুধবার বিকেলে  সম্ভুদিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।
সফরসঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এম এ আরিফ সরকার, চৌহালী থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারুন অর রশিদ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ মজনু মিয়া, একাডেমি সুপারভাইজার খালিদ মাহমুদ প্রমুখ।
স্থানীয়দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সম্ভুদিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা শিক্ষক মোঃ মোখলেসুর রহমান, প্রাক্তন শিক্ষক মোঃ আবুল কাশেম, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ মাহফুজ সরকার, প্রধান শিক্ষক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল কাহহার সিদ্দিকী,  বাঘুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম সহ বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষক সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
উপজেলার দক্ষিনাঞ্চলের এসএসসি পরিক্ষার্থীদের উপজেলা সদরে যেয়ে পরিক্ষা দেয়া ব্যাপক কষ্টসাধ্য ব্যাপার হওয়ায় এ অঞ্চলের ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও গুনিজনরা সম্ভুুদিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি পরিক্ষার নতুন কেন্দ্রের জন্য জোর দাবি জানান।
মিটুয়ানি বিসিএস আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফা বলেন- সম্ভুুদিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি পরিক্ষার কেন্দ্র দেয়া হলে এ অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা যেমন বাড়িতে থেকে পরিক্ষা দেয়ার সুবিধা পাবে তেমনই যাতায়াতের জন্য বাড়তি ৮-১০ হাজার টাকা খরচ বাচঁবে।
রেহাইপুকুরিয়া আরপিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন- উপজেলা সদরে পরিক্ষা দিলে হলে ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াত ব্যয়বহুল যা আমাদের এলাকার অবিভাবকের জন্য খুবই কষ্টসাধ্য তাই এসএসসি পরীক্ষার্থীদের কষ্ট লাঘবে সম্ভুদিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়কে পরিক্ষার কেন্দ্র করার জন্য জোর দাবি জানাই।
বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী মোঃ আনিসুর রহমান শিকদার বলেন- উপজেলা সদরে কেন্দ্র হওয়ায় অনেক মেয়ে ইভটিজিংয়ের শিকার হয়। যাতায়াতের জন্য প্রচুর বাড়তি খরচ বহন করতে হয়। বাড়িতে ফিরতে পরিক্ষার্থীদের বেশিরভাগ সময় রাত হয়ে যায়। অনেকের বাধ্য হয়ে  সদরে ভাড়া বাসায় থাকে তাই সার্বিক সমস্যার কথা চিন্তা করে সংশ্লিষ্টরা সম্ভুদিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়কে নতুন কেন্দ্র করবে বলে মনে করি।
Leave A Reply

Your email address will not be published.