চুয়াডাঙ্গায় ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার ৯২%, মৃত্যু ৫ জনের

প্রতিনিধি চুয়াডাঙ্গা

করোনায় সংক্রমিত হয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে ৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৬৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৯২ দশমিক ৭৫, যা এক দিনে শনাক্তের হারের সর্বোচ্চ রেকর্ড। আজ রোববার জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

এদিকে করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে জীবননগর উপজেলায় আজ বুধবার সকাল থেকে ৩০ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত ৮ দিনের লকডাউন শুরু হয়েছে। এ ছাড়া গত ১৫ জুন থেকে দামুড়হুদা উপজেলায় ১৪ দিনের, ২০ জুন থেকে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকা ও সদর উপজেলার আলোকদিয়া ইউনিয়নে ৭ দিনের লকডাউন চলছে।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, নতুন সংক্রমিত ৬৪ জনের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ২২ জন, ভারত সীমান্তবর্তী জীবননগর উপজেলার ২২ জন, আলমডাঙ্গার ১০ জন ও দামুড়হুদার ১০ জন আছেন। জেলায় শুরু থেকে এ পর্যন্ত ১২ হাজার ২৮৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ১১ হাজার ৬২৭ জনের ফল পাওয়া গেছে। এতে ২ হাজার ৭৯৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছেন ৮৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২০ জন। বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত আছেন ৬৮৭ জন। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ৬৩০ জন হোম আইসোলেশনে, ৫৩ জন করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। চারজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চুয়াডাঙ্গার বাইরে স্থানান্তর করা হয়েছে। জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের চিকিৎসা কর্মকর্তা (রোগনিয়ন্ত্রণ) আওলিয়ার রহমান বলেন, মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি না হলে সংক্রমণের হার আরও বেড়ে যাবে।
জেলায় করোনা পরিস্থিতিতে উদ্বেগজনক উল্লেখ করে জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, যত দিন পর্যন্ত মানুষ শতভাগ মাস্ক ব্যবহারসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলবে, তত দিন করোনাকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে না। এ জন্য জনপ্রতিনিধিসহ সব পেশার মানুষের সহযোগিতা প্রয়োজন।

Loading...