ঘরে ঢুকে হাত বেঁধে কিশোরীকে ধর্ষণ

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলায় রাতের আঁধারে হাত বেঁধে ১২ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার ওই কিশোরীর মা বুধবার বাদী হয়ে দক্ষিণ আইচা থানায় আনোয়ার ও রিয়াজ নামে দুই যুবককে আসামি করে মামলা করেছেন।

গত ৫ জুলাই রাতে নজরুলনগর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ওই কিশোরীর বসতঘরে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত আনোয়ার একই গ্রামের শামছু প্যাদার ছেলে ও রিয়াজ আনিছ প্যাদার ছেলে।

নির্যাতনের শিকার ওই শিশুর মা ৭ জুলাই জানান, গত ৪ জুলাই রাতে ওই কিশোরীর মা তার ভাশুরের নবজাতক সন্তানকে দেখতে যান। তার বাবা মাছ ধারার কাজে নদীতে ছিলেন। ছোট দুই শিশুসন্তানকে নিয়ে তার মেয়ে একই ঘরে ছিলেন।

গভীর রাতে প্রতিবেশী দুই যুবক বসতঘরের পেছনের দরজা দিয়ে ঘরে ঢুকে তার ১২ বছর বয়সী মেয়েকে হাত বেঁধে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এলে ধর্ষকরা পলিয়ে যায়।

খবর পেয়ে তিনি বাড়ি ফিরে এসে প্রতিবেশীদের সহায়তায় হাত বাঁধা মেয়েকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনার পর দিন তিনি বাদী হয়ে দুই যুবককে আসামি করে দক্ষিণ আইচা থানায় মামলা করেন।

দক্ষিণ আইচা থানার ওসি মো. হারুন অর রশিদ জানান, এ ঘটনায় মামলা করে ওই কিশোরীর মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Loading...