গুপ্তচরের বায়োপিকে দেখা যাবে সালমান খানকে

বিনোদন ডেস্ক

২০১২ সালের কথা। সালমান খান অভিনয় করবেন গুপ্তচরের চরিত্রে। চরিত্রের নাম টাইগার। ছবির নাম ‘এক থা টাইগার’। ধুন্ধুমার অ্যাকশন ঘরানার এই ছবি নিয়ে গুজব, এটি নাকি ভারতের দুর্ধর্ষ এক গুপ্তচরের জীবনী! ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর দেখা গেল, কারও জীবনী নয়, কাল্পনিক গল্পেই ঠাসা ছবির কাহিনি।
ছবি সুপারহিট। এরপরে এল ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’। আসছে সিরিজের তৃতীয় ছবি ‘টাইগার আভি জিন্দা হ্যায়’। শোনা যাচ্ছে, আবারও টাইগার চরিত্রে আসছেন সালমান। তবে এবারের টাইগার বাস্তবের। ‘এক থা টাইগার’ নিয়ে যে গুজব, তা সত্য হলো ৯ বছর পরে! ভারতের দুর্ধর্ষ গুপ্তচর ‘ব্ল্যাক টাইগার’-এর চরিত্রেই আসছেন সালমান খান।
বায়োপিক! এত বছর পরে?
রোমান্স আর অ্যাকশনে—ভাইজান এক শতে এক শ। আর বায়োপিকে অভিনয় করতে অপেক্ষা করতে হলো ৩২ বছর!
বলিউডে এখন বায়োপিকের হিড়িক। কে নেই এই তালিকায়? কুস্তিগির মহাবীর সিং ফোগাতকে পর্দায় এনেছেন আমির খান। ভারতীয় ফুটবল দলের সাবেক কোচ সৈয়দ আবদুল রহিমকে পর্দায় তুলে ধরবেন অজয় দেবগন। রণবীর সিং আসছেন ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক কপিল দেব হয়ে। তাঁর স্ত্রী দীপিকা পাড়ুকোনকে দেখা গেছে অ্যাসিড–সন্ত্রাসের শিকার লক্ষ্মী আগারওয়ালের চরিত্রে।
এখানে শেষ না, অভিনেত্রী জয়ললিতাকে নিয়ে আসছেন কঙ্গনা রনৌত। গণিত বিশেষজ্ঞ শকুন্তলা দেবী হয়েছেন বিদ্যা বালান। ভারতীয় গণিত শিক্ষক আনন্দ কুমারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন হৃতিক রোশন। বক্সার ম্যারি কমের চরিত্রে দেখা গেছে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে। বিখ্যাত কথাসাহিত্যিক সাদাত হোসেন মান্টোর চরিত্রে নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকী এবং সদ্য প্রয়াত অ্যাথলেট মিলখা সিংয়ের চরিত্রে ফারহান আখতার অভিনয় করেছেন।
শুধু তা–ই নয়, হালের তরুণ অভিনয়শিল্পীরাও আছেন এই তালিকায়। জাহ্নবী কাপুর, পরিণীতি চোপড়া, শ্রদ্ধা কাপুর, আলিয়া ভাট, রিচা চাড্ডা, তাপসী পান্নুরাও আছেন বায়োপিক নিয়ে। ভাইজান বসে থাকবেন কেন? নেমে গেলেন বায়োপিকের বাজারে।
বায়োপিক নির্মাণের দায়িত্ব রাজ কুমার গুপ্তার ঘাড়ে পড়েছে। এই পরিচালকের নাম বললে উঠে আসে ‘আমির’, ‘নো ওয়ান কিল্ড জেসিকা’, ‘ঘনচক্কর’ ছবির নাম।
বায়োপিকটি হবে অ্যাকশন-থ্রিলার ঘরানার। তবে ঘটনা উঠে আসবে রবীন্দ্র কৌশিকের জীবন থেকে। ছবির প্রযোজনা–সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রের মতে, ব্ল্যাক টাইগার ভারতের সেরা গুপ্তচরদের একজন। পরিচালক পাঁচ বছর তাঁর জীবন নিয়ে গবেষণা করেছেন। তারপর শুনিয়েছেন ভাইজানকে। সালমান খানের কাছ থেকে নাকি সবুজ সংকেতও এসেছে।
বায়োপিক হলেও ছবিতে থাকবে টান টান উত্তেজনা। থাকবে অ্যাকশন দৃশ্যও। অনেকেই হয়তো ভাবছেন, তবে কি ‘ব্ল্যাক টাইগার’ই নাম থাকছে? না। পরিচালক অন্য নামের প্রস্তাব করেছেন। তবে সেটা এখনই প্রকাশ করবেন না। সত্তর ও আশির দশকের দিনগুলো উঠে আসবে ছবিতে।
কে এই রবীন্দ্র কৌশিক কিংবা ব্ল্যাক টাইগার?
রবীন্দ্র কৌশিক ছিলেন একজন মঞ্চাভিনেতা। রাজস্থানের শ্রী গঙ্গানগরে বাড়ি। উত্তর ও পশ্চিম ভারতের চলতি হিন্দুস্তানি ভাষায় দক্ষ। আবার পাঞ্জাবি ভাষাতেও স্বচ্ছন্দ ছিলেন, যা পাকিস্তানেও প্রচলিত।
লক্ষ্ণৌয়ের জাতীয় নাট্যোৎসব থেকে তাঁর জীবনের মোড় ঘুরে যায়। রবীন্দ্র কৌশিকের সঙ্গে গোপনে দেখা করেন ‘র’-এর কর্মকর্তারা। তিনি ‘আন্ডারকভার’ এজেন্ট হিসেবে কাজ করতে আগ্রহী হন। শুরু হয় তাঁর প্রশিক্ষণ। উর্দু শেখেন। ধর্মান্তরিত হন। তাঁকে পাকিস্তানের বিভিন্ন বিষয়ে জানানো হয়। আহমেদ শাকির নাম নিয়ে গোপনে ঢুকে পড়েন পাকিস্তানে। শুরু হয় রবীন্দ্র কৌশিকের অন্য জীবন।
এরপর করাচি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনে ডিগ্রি নেন। যোগ দেন পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর নাকের ডগা দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ভারতে পাচার করতেন রবীন্দ্র ওরফে শাকির। কিন্তু ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থার আরেক কর্মকর্তার ভুলে ধরা পড়ে যান তিনি। গ্রেপ্তার করে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয় তাঁকে। যদিও পরে সেই রায় পাল্টে যায়। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল রবীন্দ্র কৌশিককে।
মুলতানের নিউ সেন্ট্রাল জেলে মৃত্যু হয় তাঁর।

Loading...