নতুন ৩ টি গান লিখেছেন রাবা খান

রিলিজ হচ্ছে রাবা খানের আর ৩ টি গান

প্রথমবারের মতো গান লিখেছেন রাবা খান,

একটি নয় ৭ টি গান। এরইমধ্যে ৪ টি গান রিলিজ হয়ে গেছে। আরো ৩ টি গান বাকি রয়েছে। সেসবও ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হবে। রাবার সঙ্গে যৌথভাবে লিখেছেন আরাফাত মহসিন।

বিষয়টি নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত রাবা খান। কালের কণ্ঠকে বললেন, ‘আমি অনেককিছু লিখেছি, এবার প্রথমবারের মতো গান লিখলাম। এটা অন্যরকম অনুভূতি। শুধু লেখা নয়, এই গানে সুরও দিয়েছি এবং কণ্ঠও দিয়েছি। শুভাকাঙ্ক্ষীদের ভালো সাড়া পাচ্ছি, এটা সুখকর বিষয়।’

মূলত ৭ টি গানের সমন্বয়কে অ্যালবাম হিসেবেই অভিহিত করছেন রাবা খান। নিজের ব্যক্তিগত ও পেশাগত কাজের পাশপাশি সময় বের করে এই মুহূর্তে গানটাকে সময় দিচ্ছেন।

সোমবার সকালে কালের কণ্ঠকে বললেন, ‘আসলে আমি তো লিখতে পারি। ভাবলাম একটা গান লিখি। রাফাত মোহসিনকে সাথে নিয়ে একটা গান লিখলাম। সুরও দিলাম তাতে। পরে দুজন মিলে গাইলাম ও রিলিজ করলাম। প্রত্যাশার চেয়েও বেশি কিছু পেলাম যা আমাদের পরবর্তী গান করার বিষয়ে আগ্রহ তৈরি করলো। এই ধারাবাহিকতায় আমরা ৭ বটি গানের কাজ করে ফেললাম।’

২০১৯ বই মেলায় বান্ধবী’ নামে রাবা খানের একটি বই প্রকাশ হয়। আর তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয় হইচই। তবে সেসবকে পাত্তা দেননি রাবা খান। এদিন আলাপকালে বললেন, ‘আমার জীবনের সেরা অভিজ্ঞতা হলো আমার বই প্রকাশ। বই প্রকাশ করে আমি মনের দিক থেকে ব্যাপক সন্তুষ্ট। আমি লিখতে পেরেছি আমার ভেতরের কথাগুলো। যা আমার সারাজীবনের জন্য সঞ্চয় হিসেবে তোলা রইলো। আমি যখন ইচ্ছে খুলে দেখতে পারি, পড়তে পারি আবার রেখে দেই। আর এই বইয়ের যা সাড়া পেয়েছি তা কল্পনাতীত।’

নতুন কোনো বই আসছে নাকি- রাবা খান প্রশ্নের উত্তর দিতে কিছুটা সময় নিলেন। তারপর নিশ্চিত হয়েই জানালেন। তার কোনো বই আসছে না। বললেন, ‘আসলে একটা গল্প মাথায় এসেছে। কিন্তু বই করার মতো লেখালেখি এখনো করি নি। এ বছর আমার কোনো বই আসছে না।,

২০১৬ সালের শেষের দিকে ‘আন্টিদের কথোপকথন’ সাধারণত কেমন হয়, এ রকমই একটি ভিডিও পোস্ট করেন রাবা। সেই ভিডিও ফেসবুকে এত বেশি ছড়িয়ে পড়ে। মূলত সেখান থেকেই নেটিজেনরা রাবা খানকে চেনে। ২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ফোর্বস ম্যাগাজিনের করা এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের ৩০ তরুণ উদ্যোক্তার তালিকায় স্থান রাবা খান।

৭ বছর আগে ইউটিউবে ‘দ্য ঝাকানাকা প্রজেক্ট’ চ্যানেল থেকে নিয়মিত ভিডিও বানিয়েছেন। এই প্রজেক্টটিই ফোর্বসের কাছে গুরুত্ব পেয়েছিল।

 

 

 

কেন এতো জনপ্রিয় রাবা খান ও তার গান

 

সোশাল মিডিয়ায় বেশ জনপ্রিয় রাবা খান। শখের বশে নিজে নিজেই ভিডিও করে সেটা পোস্ট করে দেন। শুধু মজার ছলেই এই ভিডিও ছড়িয়ে যায় সোশাল মিডিয়ায়। বিশেষ করে ফেসবুকের টাইমলাইনে পাওয়া যায় রাবা’র ভিডিও।

সোশাল মিডিয়ায় অনেকেই আসেন একটু আনন্দের জন্য, মজার জন্য। কেউবা সোশাল কানেক্টিভিটির জন্যই নিয়মিত এই প্ল্যাটফর্মে যাতায়াত করেন। এরই ফাঁকে একবার এদিকে-সেদিকে ঢুঁ মারা। প্রায় সবশ্রেণির সোশাল মিডিয়া ব্যবহারকারীর নিকট রাবা তুমুল জনপ্রিয়।

কেন এই জনপ্রিয়তা? গত বছরের শেষের দিকে ‘আন্টিদের কথোপকথন’ সাধারণত কেমন হয়, এ রকমই একটি ভিডিও পোস্ট করেন রাবা। সেই ভিডিও ফেসবুকে এত বেশি ছড়িয়ে পড়ে যে এখন পর্যন্ত ভিডিওটি প্রায় ৫ লাখ দর্শক দেখেছেন। সবচেয়ে মজার বিষয় মানুষজন ভিডিও দেখেছেন, শেয়ার করেছেন এবং মেনশন করে অন্যকেও দেখার ব্যবস্থা করেছেন। রাবার কণ্ঠ, এক্সপ্রেশন মানুষকে মুগ্ধ করেছে। সম্প্রতি টিপিক্যাল মায়েরা সন্তানের সাথে যেভাবে কথা বলেন, মা সন্তানের সম্পর্কের বিষয় নিয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। সেটিও ফেসবুক থেকে প্রায় ৪ লাখ মানুষ দেখেছেন। ফেসবুকেও রাবাকে অনুসরণ করেন প্রায় ৮৩ হাজার ব্যবহারকারী।

রাবা খান দেড় বছর আগে বেসরকারি রেডিও স্টেশন ‘রেডিও ফুর্তি’তে মাত্র ১৬ বছর বয়সে আরজে হিসেবে যোগদান করেছেন। এই আরজে হবার বিষয়টাও বেশ মজার। ভিডিও দেখেই রাবার সাথে যোগাযোগ করেন রেডিও ফুর্তির হেড অফ প্রোগ্রাম আরজে সার্জিনা। এরপর বিভিন্ন পরীক্ষা দিয়ে ভাইবোন দুজনই সেখানে যোগদান করেন। রাবার ভাইয়ের নাম ফাহাদ রিয়াজ। ফাহাদ-রাবা দুজন মিলেই ইউটিউবে ‘ঝাকানাকা প্রজেক্ট’ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলেছেন।

রাবা ইংরেজি মাধ্যমের স্কুলে ‘ও’ লেভেলে পড়ছেন। এইট গ্রেডে থাকতেই ভিডিওর প্রতি আগ্রহী হন। ছোট ছোট ভিডিও পোস্ট করে এখন তিনি জনপ্রিয়। এরই মাঝে বিভিন্ন কম্পানির ব্র্যান্ড প্রমোশনে কাজ করছেন। ফেসবুকে ছোট ছোট ভিডিওর সাথে কাভার সংগীতও গান রাবা। ক্যারিয়ারে সংগীতশিল্পীর তকমাও যুক্ত করতে চান। হবেন ‘কপিরাইটার’ খুব জোরালোভাবে জানালেন ক্যারিয়ারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশকে।

রাবা বলেন, যেহেতু আমি বিজ্ঞাপনের বিভিন্ন কাজের সাথে যুক্ত আছি, বিভিন্ন কম্পানির বিজ্ঞাপন আইডিয়া দিচ্ছি সেহেতু আমি কপিরাইটার হতে চাই। পাশাপাশি বাকি পরিকল্পনাগুলোও বাস্তবায়ন করব যখন মনে করব সময় হয়েছে। টিভি বিজ্ঞাপন করবেন যখন নিজেকে যোগ্য মনে করবেন এমনটা জানালেন রাবা।

 

আরো পড়ুনঃ

‘এক রাইতে গ্যাসের গাড়ি ত্যালের হইয়া গ্যালো

 

 

ছাড়পত্র পেল রোহিঙ্গা সিনেমাঃ

ভাড়া বৃদ্ধির কারণে যাত্রীর সংখ্যা কমছে বলে জানান ওয়েলকাম বাসের চালকের সহকারী হাবিল। বাসটির প্রায় অর্ধেক আসন ফাঁকা। এই প্রবণতা কিছুদিন চলবে। আবার সব ঠিক হয়ে যাবে বলেই বিশ্বাস হাবিলের। বলেন, ‘কয় দিন ঘরে বইয়া থাকব, কন?’

বাংলাদেশের দাপুটে অভিনেতা মোশাররফ করিমের সঙ্গী হচ্ছেন ভারতীয় অভিনেত্রী পার্নো মিত্র। বিলডাকিনী নামে একটি সিনেমায় মুখ্যভূমিকায় দেখা যাবে তাকে।

সিনেমাটি পরিচালনা করবেন ফজলুল কবীর তুহিন। রাজশাহীর একটি গ্রামে আগামী ডিসেম্বর থেকে ছবির শুটিং হওয়ার কথা রয়েছে। সিনেমাটিতে মোশাররফ করিম ও পার্নো ছাড়া থাকছেন আরেক গুণী অভিনেতা লুৎফর রহমান জর্জ।

তেলের দামের বাড়ায় গ্যাসনির্ভর গাড়িগুলোর দাম বাড়ার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুললে শুনতে হচ্ছে, গাড়ি তেলে চলে। পরীক্ষা কে করবে?
কিন্তু নিশ্চিতভাবেই গ্যাসে চালিয়ে দিব্যি ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছে লেগুনা বা হিউম্যান হলারগুলো। ফার্মগেটের ইন্দিরা রোডে মোহাম্মদপুর ও জিগাতলায় যাওয়ার লেগুনাগুলো সারি ধরে দাঁড়িয়ে। মোহাম্মদপুরের ভাড়া আগে ছিল ১০ টাকা। ১ নভেম্বর থেকে সেগুলো করা হয়েছে ১৫ টাকা। চালক শেখ আবদুল্লাহ বলেন, ‘আগে পেছনে ১২ জন বসত। যাত্রীদের কষ্ট হইত। এহন ১০ জন বসাই, তাই ভাড়া বাড়তি।’

এই গাড়িতে চড়া শিক্ষার্থী অপূর্ব মিত্র বলেন, আসলে যাত্রী বসানোর ক্ষেত্রে কোনো রকমফের হয়নি। এরা এখনো ঝুলিয়ে লোক নেয়। আর এগুলোয় তো ১২ জনের সংকুলান হয় না। এরা জোর করে নিত। এখন ১০ জন তোলার কথা বলে বাড়তি ৫০ শতাংশ বাড়াল।

এ কথায় একটু চড়া গলা চালক শেখ আবদুল্লাহর। বলেন, ‘সবকিছুর দাম বাড়তাছে। চালের দাম বাড়তি, সয়াবিনের দাম বাড়ছে। আমরা কি হাওয়া খাইয়া থাকুম?’
যাত্রী নাসরিন সুলতানার তাৎক্ষণিক জবাব, ‘এসব জিনিস আমাদের খাইতে হয় না? নাকি আমাদের জন্য কম দামে দ্যায়?’

ভাড়া বৃদ্ধির কারণে যাত্রীর সংখ্যা কমছে বলে জানান ওয়েলকাম বাসের চালকের সহকারী হাবিল। বাসটির প্রায় অর্ধেক আসন ফাঁকা। এই প্রবণতা কিছুদিন চলবে। আবার সব ঠিক হয়ে যাবে বলেই বিশ্বাস হাবিলের। বলেন, ‘কয় দিন ঘরে বইয়া থাকব, কন?’

বাংলাদেশের দাপুটে অভিনেতা মোশাররফ করিমের সঙ্গী হচ্ছেন ভারতীয় অভিনেত্রী পার্নো মিত্র। বিলডাকিনী নামে একটি সিনেমায় মুখ্যভূমিকায় দেখা যাবে তাকে।

সিনেমাটি পরিচালনা করবেন ফজলুল কবীর তুহিন। রাজশাহীর একটি গ্রামে আগামী ডিসেম্বর থেকে ছবির শুটিং হওয়ার কথা রয়েছে। সিনেমাটিতে মোশাররফ করিম ও পার্নো ছাড়া থাকছেন আরেক গুণী অভিনেতা লুৎফর রহমান জর্জ।

 

পরিচালক জানিয়েছেন, মূলত নারীশক্তি এবং নারীশক্তির উত্থান নিয়েই এই ছবি। মাতৃত্বের স্বাধীনতার গল্প। নারীশক্তি ও মাতৃত্বের স্বাধীনতার গল্প নিয়ে বিলডাকিনী সিনেমার গল্প আবর্তিত হয়েছে।

 

কলকাতার অভিনেত্রী পার্নো মিত্রকে বেডরুম, দত্ত ভার্সেস দত্ত, অপুর পাঁচালী, ‘রাজকাহিনী’র মতো সিনেমায় দেখা গেছে।

এছাড়া বাংলাদেশের ডুব সিনেমায় অভিনয় করেও আলোচিত হয়েছেন তিনি। যেটি নির্মাণ করেছিলেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.