কুর্মিটোলা-ঢামেক-মুগদা-সোহরাওয়ার্দীতে ফাঁকা নেই আইসিইউ

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন চার হাজার ৬৩৬ জন। এর আগে সর্বশেষ গত ২০ এপ্রিল ২৪ ঘণ্টায় চার হাজার ৫৬৯ জন শনাক্ত হওয়ার তথ্য জানিয়েছিল অধিদফতর। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত বাড়লেও কমেছে মৃত্যু, এ সময় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭৮ জন।  তার আগের ২৪ ঘণ্টায় ৮২ জনের মৃত্যুর কথা জানানো হয়েছিল।

গত ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ২৭ শতাংশ। সংক্রমণের এই ঊর্ধ্বগতিতে রাজধানী ঢাকার অন্যতম চারটি সরকারি হাসপাতালেই নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র ( আইসিইউ) রোগীতে পূর্ণ হয়ে উঠেছে। গত কিছুদিন আগেও এসব হাসপাতালের সাধারণ শয্যাসহ আইসিইউর অনেক বেড ফাঁকা ছিল।

সোমবার (২১ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে  বলা হয়, করোনা রোগীদের জন্য ডেডিকেটেড কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের ১০ বেড, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২০ বেড, মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২৪ বেড এবং শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ১০ বেডের একটিও ফাঁকা নেই।

আর কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের ২৬ আইসিইউর মধ্যে খালি রয়েছে ১৭টি, শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের ১৬ বেডের মধ্যে ১০ বেড, সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের ছয় বেডের মধ্যে চারটি, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালের ১৫ বেডের মধ্যে সাতটি, জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের ১০ বেডের মধ্যে দুইটি, টিবি হাসপাতালের পাঁচ বেডের মধ্যে পাঁচটি, জাতীয় বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের ১০ বেডের মধ্যে পাঁচটি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ বেডের মধ্যে চারটি এবং ডিএনসিসি ডেডিকেটেড কোভিড হাসপাতালের ২১২ বেডের মধ্যে ১৪১ বেড ফাঁকা রয়েছে।

অর্থাৎ, রাজধানীতে  করোনা ডেডিকেটেড সরকারি হাসপাতালগুলোর ৩৮৪টি আইসিইউ বেডের মধ্যে বর্তমানে ফাঁকা রয়েছে ১৯৫ বেড।

Loading...