করোনা পরীক্ষায় সরকারি ব্যয়ে সাড়ে চারশো কোটি টাকার গরমিল

সম্প্রতি গণমাধ্যমে দেওয়া স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞাপন ও সংস্থাটির নিয়মিত বুলেটিনে প্রচারিত করোনার নমুনা পরীক্ষার সংখ্যায় বিস্তর ফারাক রয়েছে। প্রতিদিনকার বুলেটিনের চেয়ে বিজ্ঞাপনে প্রায় ১৫ লাখ নমুনা পরীক্ষা বেশি দেখানো হয়েছে। সরকারি হিসাবে প্রতিটি নমুনা পরীক্ষার ব্যয় তিন হাজার টাকা। এই হিসাব অনুযায়ী, এ খাতে সাড়ে চারশো কোটি টাকা ব্যয়ের গরমিল পাওয়া গেছে।

গত শুক্রবার (৯ জুলাই ২০২১) কোভিড-১৯ চিকিৎসার ব্যয় নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞাপন এবং ওই সময় পর্যন্ত অধিদফতরের প্রচারিত নিয়মিত বুলেটিন পর্যালেচনা করে এ তথ্য পাওয়া গেছে।
অধিদফতরের বিজ্ঞাপনে দাবি করা হয়েছে, ‘৯ জুলাই পর্যন্ত ৬৫ লাখ ৬ হাজার ৮৭১ জনের কোভিড টেস্ট করা হয়েছে। এতে সরকারের ব্যয় হয়েছে এক হাজার ৯৫২ কোটি টাকা।’ ওই বিজ্ঞাপনে প্রতিটি পরীক্ষার জন্য তিন হাজার টাকা করে খরচ হয়েছে বলে দাবি করা হয়।

অপরদিকে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে গত শুক্রবার করোনা বিষয়ক যে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে তাতে দেখা গেছে, বিজ্ঞাপন প্রচারের দিন (৯ জুলাই) পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে মোট ৬৯ লাখ তিন ২৬৮ জনের। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৫০ লাখ ৪৯ হাজার ২০৩টি।অর্থাৎ, বিজ্ঞাপনে প্রায় ১৫ লাখ নমুনা পরীক্ষা বেশি দেখানো হয়েছে।

অবশ্য ৯ জুলাই শুক্রবার গণমাধ্যমে স্বাস্থ্য অধিদফতরের যে বিজ্ঞাপন প্রচারিত হয়েছে, সেটি গণমাধ্যম অফিসে অন্তত তার আগের দিন (৮ জুলাই) রাতের মধ্যে পাঠাতে হয়েছে। এই হিসাবে ৮ জুলাই সকাল ৮টা পর্যন্ত যত সংখ্যক কোভিড পরীক্ষা হয়েছে, ততগুলোই বিজ্ঞাপনে প্রচার করা সম্ভব হয়েছে। ওইদিন পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫০ লাখ ২১ হাজার ২২১ জনের করোনা পরীক্ষা সম্ভব হয়েছে। করোনা বুলেটিনের তথ্যানুযায়ী, ৮ জুলাই পর্যন্ত দেশে মোট ৬৮ লাখ ৬৬ হাজার ৬৮২ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয় ১৮ লাখ ৪৫ হাজার ৪৬১ জনের। ফলে সরকারি ব্যবস্থাপনার পরীক্ষায় বিজ্ঞাপনের হিসাব আর বুলেটিনের হিসাবে পার্থক্য রয়েছে ১৪ লাখ ৮৫ হাজার ৫৬০টি নমুনা পরীক্ষা।

অধিদফতরের দাবি অনুযায়ী, প্রতিটি পরীক্ষার ব্যয় ৩ হাজার টাকা করে ধরলে বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনার ৫০ লাখ ২১ হাজার ২২১টি কোভিড টেস্টে মোট খরচ হয়েছে এক হাজার ৫০৬ কোটি ৩৬ লাখ ৬৩ হাজার টাকা। কিন্তু বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ওই দিন পর্যন্ত কোভিড টেস্টের খরচ হয়েছে মোট এক হাজার ৯৫২ কোটি টাকা। অবশ্য প্রতিটি টেস্ট তিন হাজার হিসাবে খরচ হয় এক হাজার ৯৫২ কোটি ৩ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। বিজ্ঞাপনে হয়তোবা খুচরা টাকার হিসাব উল্লেখ করা হয়নি।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞাপনে প্রচারিত করোনা পরীক্ষা ও একই সংস্থার নিয়মিত বুলেটিনে প্রচারিত করোনা পরীক্ষার ব্যয়ের পার্থক্য ৪৪৫ কোটি ৬৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা। অর্থাৎ, বিজ্ঞাপনে এই টাকা বেশি খরচ দেখানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন প্রচারের তিন দিনের মাথায় রবিবার (১১ জুলাই) সরকারি ব্যবস্থাপনায় করোনা পরীক্ষার যে তথ্য দেওয়া হয়েছে, সেটাও বিজ্ঞাপনের সংখ্যার চেয়ে কম। সর্বশেষ রবিবার সরকারি ব্যবস্থাপনায় করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫১ লাখ ১ হাজার ৭১২টি।

এ বিষয়ে জানতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল বাশার খুরশিদ আলম এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের দুই মুখপাত্র অধ্যাপক রোবেদ আমিন ও অধ্যাপক নাজমুল ইসলামের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তাদের সাড়া পাওয়া যায়নি।

 

Loading...