এতিমখানায় গেল ৫০০ অতিথির খাবার!

এতিমখানায় গেল ৫০০ অতিথির খাবার। হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার বুল্লা ইউনিয়নের বুল্লা গ্রামে জালু মিয়া নামে এক ব্যাক্তি সরকারি বিধি-নিষেধ অমান্য করে তার ছেলের বিয়ের আয়োজন করছিলেন। অনুষ্ঠানে ৫০০ অতিথিকে খাওয়ানোর জন্য করা হয় ব্যাপক আয়োজন। চারিদিকে উৎসব সাজ-সাজ রবের কমতি ছিল না। 

অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি পর্বের শেষ পর্যায়ে বাড়ির সামনে কয়েকটি গাড়ি আসলে স্থানীয় এলাকাবাসী ও বর পক্ষের লোক মনে করেন কনেপক্ষের অতিথীরা চলে এসেছেন। কিন্তু বিধি বাম!  গাড়ি থেকে নেমে আসেন মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মঈনুল ইসলাম মঈন এবং তাঁর সাথে ছিলেন সেনাবাহিনী পুলিশ ও আনসার সদস্যরা। এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

আইন না মেনে এবং সরকারি বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে বিয়ের আয়োজন করায় বরের বাবা জালু মিয়াকে ১০০০০ টাকা অর্থদণ্ড করেন এবং বিয়ের অনুষ্ঠান  তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। একইসাথে অতিথিদের জন্য আয়োজন করা খাবারগুলো তাঁর নেতৃত্বে সেনাবাহিনী, পুলিশ, আনসার সদস্য এবং স্থানীয় এলাকাবাসী এতিমখানায় পৌঁছে দেয়।

এ ঘটনায় বিব্রত হয়ে মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মঈনুল ইসলাম মঈন বলেন, “আইন না মেনে এই অনুষ্ঠান আয়োজন করায় তা পণ্ড করা হয়েছে। বরের পিতার কাছ থেকে নগদ ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। খাবারগুলো পৌঁছে দেয়া হয়েছে বিভিন্ন এতিমখানায়। এটি সবার জন্য উদাহরণ সৃষ্টি করবে।”

 

সম্পাদনা:  আরিফুল ইসলাম লিখন।

Loading...