আশা জাগিয়েও পারল না বাংলাদেশ

দুই বছর আগে নারী এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টিতে ভারতের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ৭ উইকেটের সহজ জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ দল। ম্যাচে আগে ব্যাট করে ১৪১ রান করেছিল ভারতীয় নারীরা। জবাবে ২ বল হাতে রেখেই বন্দরে পৌঁছে গিয়েছিল সালমা খাতুনের দল। পরে সে টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়নও হয়েছিল বাংলাদেশ।

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সেই এশিয়া কাপের প্রায় দুই বছর পর নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেও ভারতকে হাতের মুঠোয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। সেদিনের মতোই এ ম্যাচে ১৪২ রানে বেঁধে ফেলা হয়েছিল ভারতীয় নারী দলকে। কিন্তু ব্যাট হাতে আর কাজের কাজ করা সম্ভব হয়নি।

যে কারণে পরাজয় দিয়েই শুরু হলো সালমা-রোমানাদের বিশ্বকাপ মিশন। ভারতের ছুড়ে দেয়া ১৪৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১২৪ রান করতে সক্ষম হয়েছে বাংলাদেশ। পরাজয়ের ব্যবধান ১৮ রানের।

রান তাড়া করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার শামীমা সুলতানা (৮ বলে ৩)। কিছুই করতে পারেননি তিন নম্বরে নামা সানজিদা ইসলামও (১৭ বলে ১০)। ব্যর্থতার মিছিলে নাম লেখার আরেক নির্ভরযোগ্য ব্যাটার ফারজানা হক, আউট হন রানের খাতা খোলার আগেই।

তবে আরেক ওপেনার মুর্শিদা খাতুন এবং উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নিগার সুলতানা জ্যোতি করে দায়িত্বশীল ব্যাটিং। তাদের ব্যাটে আশা জেগেছিল জয়ের। ওপেনার মুর্শিদার ব্যাট থেকে আসে ২৬ বলে ৩০ রান, জ্যোতি করেন ২৫ বলে ৩৫ রান।

কিন্তু এ দুজনের বিদায়ের পর আর কেউই তেমন কিছু করতে পারেননি। অধিনায়ক সালমা খাতুন ৫ বলে ২ রানে অপরাজিত ছিলেন। সহ-অধিনায়ক রোমানা আহমেদের ব্যাট থেকে আসে ৮ বলে ১৩ রান। যা জয়ের জন্য যথেষ্ঠ ছিল না।

Loading...