সুন্দর ত্বক পেতে, আর নয়,অতিরিক্ত মিষ্টি……।

বাঙালীর মতো মিষ্টিরসিক খুব কমই আছে। বিশেষত নারীদের মধ্যে মিষ্টিপ্রীতিটা বেশ। অবশ্য এমন ক্ষেত্রে মোটেও নারী পুরুষ ভেদাভেদ করা সম্ভব না। তবে অনেকেই সুযোগ পেলে মিষ্টি খাবেন৷ অবশ্য এখন সহজেই মিষ্টি খাওয়া যায়। রাস্তায় বের হলেই মিষ্টি চকলেট নাহয় নানা রকম মিষ্টি খাবার। আবার বাড়িতে ফ্রিজেই অনেকে রেখে দেন। একটু লোভ হলো তো মুখে টপাটপ দু তিনটে পুড়ে দেয়া কোনো ব্যাপারই না।

 

ও হ্যাঁ! ডায়বেটিস তো নেই! এত চিন্তার কি আছে? শুধু ডায়বেটিস থাকলেই যে মিষ্টির লোভে লাগাম টেনে ধরবেন তা কিন্তু না। বেশি মিষ্টি খেলে আপনার ত্বকে নানাবিধ সমস্যা হতে পারে। যারা মিষ্টিজাতীয় খাবার দেখলে ঠিক হাত আর রসনাকে সামলাতে পারেন না, তাদের এখনই একটু সচেতন হতে হবে। আসুন জেনে নেই মিষ্টি খেলে আপনার ত্বকের কি কি সমস্যা হতে পারে। তারপর আপনিই সিদ্ধান্ত নিন ত্বক নাকি মিষ্টির লোভ, কোনটা বিসর্জন দেয়া উচিত।

মিষ্টি
বেশি মিষ্টিখেলে ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ পড়তে শুরু করে
অতিরিক্ত মিষ্টিজাতীয় খাবার খেলে প্রদাহজনিত সমস্যা হতে পারে। খেয়াল করবেন অনেকের মুখেই মাঝেমধ্যে র‍্যাশ দেখা দেয়। যদি বেশি মিষ্টি খেয়ে থাকেন তাহলে এটাও একটা কারণ। এগজিমা ও সোরিয়াসের মতো ত্বকের অসুখও  বেশি খেলেই হয়।

বেশি মিষ্টি খেলে ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ পড়তে শুরু করে। কারণ  প্রচুর গ্লাইসেমিক ইনডেক্স আছে৷ এর পরিমাণ সত্যিই অনেক বেশি।

নিয়মিত ত্বকের যত্ন নেয়ার পরেও ত্বক শুষ্ক এবং প্রাণহীন মনে হতে পারে। একবারো কি ভেবে দেখেছেন অতিরিক্ত মিষ্টিজাতীয় খাবার খাওয়াতে এই সমস্যা হচ্ছে? ভাবেন নি তো? যেকোনো এ জাতীয় খাবার খেলে ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা কমতে থাকে এবং ত্বক শুষ্ক হতে শুরু করে। আমরা বলছিনা মিষ্টি খাওয়া বাদ দিন। শুধু পরিমাণমতো খান।

ব্রণর সমস্যায় ভুগছেন? তাহলে আজই মিষ্টিকে বিদায় জানান।  খেলেই ব্রণের সমস্যা বাড়বে।

বাংলাদেশ কেন ভোট দেয়নি, ব্যাখ্যা দিলেন দুই মন্ত্রী

চীন,ব্যয় বাড়াচ্ছে প্রতিরক্ষা খাতে

অতিরিক্ত অতিরিক্ত 

Leave A Reply

Your email address will not be published.