Ultimate magazine theme for WordPress.

ভারতে এইচআইভি প্রতিষেধকে করোনা রোগী সেরে উঠেছে

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এক ইতালীয় দম্পতি এইচআইভি প্রতিষেধকে সেরে উঠেছেন। ভারতের রাজস্থান রাজ্যে প্রতিষেধক দেওয়ার পর তাদের দুই দফা পরীক্ষা করেও ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। রাজস্থানের স্বাস্থ্য বিভাগের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব রোহিত কুমার সিং এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (আইসিএমআর) এর আগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের জন্য এইচআইভি প্রতিষেধকের ‘নিয়ন্ত্রিত ব্যবহারের’ অনুমতি পেয়েছে। জরুরি স্বাস্থ্য পরিস্থিতিতেই শুধু এ ধরনের ওষুধ প্রয়োগের বিধান আছে।

তবে আইসিএমআরের কর্মকর্তারা বলছেন, দুজন সেরে ওঠা মানে এই নয় যে ওই দম্পতির ওপর প্রয়োগ করা ওষুধ করোনার প্রতিষেধক হিসেবে কার্যকর। প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা আর আর গঙ্গখিধর বলেছেন, ‘চীনে এ নিয়ে কাজ চলছে। সেখানে বড় ধরনের প্রয়োগের ফল দেখার জন্য আমরা অপেক্ষা করছি।’

সেরে ওঠা ইতালীয় দম্পতির বয়স ৭০ এর ঘরে। ৩ মার্চ স্বামীর করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়। পরদিনই তার স্ত্রী আক্রান্ত হন। তাদের সরকারি সাওয়াই মান সিং হাসপাতালে রাখা হয়। দুজনের অবস্থা সংকটজনক অবস্থায় পৌঁছানোর পরই এইচআইভির প্রতিরোধী ওষুধ প্রয়োগ করা হয়। এরপর তাদের দুই দফায় করোনার পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু ফল নেগেটিভ আসে।

ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন ইতালীয় দম্পতির ওপর এইচআইভি প্রতিরোধী ওষুধ প্রয়োগের কথা স্বীকার করেছেন। রাজস্থানের স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্র জানায়, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি দুবাই থেকে ৮৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তি আসেন। ১১ মার্চ তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়। এই ব্যক্তিকেও এইচআইভির ওষুধ দেওয়া হয়েছে। তিনটি ক্ষেত্রেই আক্রান্ত ব্যক্তির অনুমতি নিয়েই ওষুধ দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ভারতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১২৯ জন। এর মধ্যে মারা গেছে ২ জন, সুস্থ হয়েছে ১৩ জন এবং চিকিৎসাধীন রয়েছে ১১৪ জন।

উল্লেখ্য, চীনে করোনা ভাইরাস প্রায় নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। কিন্তু চীনের বাইরে অন্যান্য দেশে ব্যাপক আকারে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। এতে বিশ্বব্যাপী প্রচণ্ড আতঙ্ক ও ভয়ের সৃষ্টি হয়েছে।

করোনা ভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে ৬৪৫ জনসহ মোট মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ১৬৪ জনের। শুধু চীনেই মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ২২৬। চীনের বাইরে মারা গেছে ৩ হাজার ৯৩৮ জন।

এ ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে মোট আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৮২ হাজার ৫৫০ জন। এর মধ্যে ৭৯ হাজার ৮৮১ জন সুস্থ হয়েছে বাড়ি ফিরেছেন। এছাড়া চীনে আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ৮৮১ এবং চীনের বাইরে ১ লাখ ১ হাজার ৬৬৯ জন মানুষ।

বর্তমানে ৯৫ হাজার ৫০৫ জন আক্রান্ত রয়েছেন। তাদের মধ্যে ৮৯ হাজার ৩৪২ জনের অবস্থা সাধারণ (স্থিতিশীল অথবা উন্নতির দিকে) এবং বাকি ৬ হাজার ১৬৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আক্রান্তের অনুপাতে মৃত্যুর হার ৮ শতাংশ এবং সুস্থতার হার ৯২ শতাংশ।

চীনে উদ্ভূত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিনই বাড়ছে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৬২টি দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

যেসব দেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে-

এর মধ্যে চীনে ৩ হাজার ২২৬, ইটালিতে ২ হাজার ১৫৮, ইরানে ৮৫৩, স্পেন ৩৪২, ফ্রান্স ১৪৮, দক্ষিণ কোরিয়ায় ৭৫, যুক্তরাষ্ট্র ৮৭, যুক্তরাজ্য ৫৫ জন সহ ১৬২টি দেশে মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ১৫৮ জনের।

Leave A Reply

Your email address will not be published.