Ultimate magazine theme for WordPress.

করোনা ভাইরাস: বিদেশি বিমান সংস্থাগুলোর চীনে ফ্লাইট বাতিল

মরণঘাতী করোনা ভাইরাসের দ্রুতগতির বিস্তারে বিদেশি বিমানসংস্থাগুলো চীনে বুধবার থেকে ফ্লাইট বাতিল শুরু করেছে। বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার মধ্যেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হলো। এর মধ্যেই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৩২ জন নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে ৬ হাজারের মতো মানুষ।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ তাদের নাগরিকদের উহান থেকে তাদের নাগরিকদের সরিয়ে নিতে বিমান পাঠানোর কয়েক ঘণ্টা পরই এমন ঘোষণা দেওয়া হলো। উহান থেকেই এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব, যেখানে প্রায় ১১ মিলিওন মানুষের বসবাস।

ইতোমধ্যে ভাইরাস থেকে সুরক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির পাশাপাশি বিভিন্ন দেশ তাদের নাগরিকদের চীনে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা দিয়েছে।

চায়নাও তার নিজ নাগরিকদের দেশের বাহিরে ভ্রমণ থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ জানিয়েছে। যেখানে প্রায় ১৫ দেশে করোনা আক্রান্ত শনাক্ত করার কথা নিশ্চিত করা হয়েছে। এদিকে বুধবার সংযুক্ত আরব আমিরাত মধ্যপ্রাচ্যে প্রথম করোনা আক্রান্তের কথা নিশ্চিত করেছে।

চীন থেকে সকল ফ্লাইট বাতিলের ঘোষণা দেওয়া প্রথম বিমান সংস্থা হলো ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ। ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপদেশ অনুযায়ী এই ঘোষণা দেয় সংস্থাটি।

ফ্লাইট বাতিলের পর সংস্থাটি তার যাত্রীদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে বুধবার গণমধ্যমে একটি বিবৃতি পাঠিয়েছে, সেখানে তারা লিখেছে, “আমরা আমাদের যাত্রীদের কাছে অনাকাঙ্ক্ষিত এই ঘটনার জন্য ক্ষমাপ্রার্থী, কিন্তু আমাদের যাত্রী ও ক্রুদের নিরাপত্তা আমাদের প্রথম প্রাধান্য।”

এছাড়া ইন্দোনেশিয়ার লায়ন এয়ার গ্রুপ, মায়ানমারের ৩টি বিমান সংস্থা, ক্যাতে প্যাসিফিক বিমান সংস্থাসহ আরও কয়েকটি দেশের বিভিন্ন এয়ারলাইন্স চীনে তাদের ফ্লাইট বাতিল করছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.