Ultimate magazine theme for WordPress.

করোনা নয়, সৌদি ফেরত যুবকের ধরা পড়ল সোয়াইন ফ্লু

সৌদি আরব থেকে ফিরে আসা যুবকের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে কি না, তা যাচাই করতে গিয়ে সোয়াইন ফ্লু-র হদিস পেলেন চিকিৎসকরা। তবে মিনারুল শেখ নামে ওই যুবক আপাতত সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন ভারতের বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের চিকিৎসকরা।
এক দিনের ব্যবধানে সৌদি আরব থেকে এমিরেটসের উড়ানে কলকাতায় ফেরেন জিনারুল শেখ ও মিনারুল শেখ। গত শনিবার রাতে নবগ্রামের বাড়িতে ফিরে জ্বর, সর্দি, শ্বাসকষ্টের লক্ষণ নিয়ে জিনারুল গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।
পর দিন বিকেলে আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার। সোমবার স্বাস্থ্য দপ্তর জানায়, মৃতের লালারসের নমুনায় করোনার প্রমাণ মেলেনি। রবিবার কলকাতায় ফেরা মিনারুলের দেহেও করোনার প্রমাণ মেলেনি।

তবে সোয়াইন ফ্লু-র অস্তিত্ব মিলেছে। আইডির অধ্যক্ষা অণিমা হালদার জানান, মিনারুল ছাড়া আরেক জন সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
তিনি আরো জানান, নতুন করে আরো চার জনকে আইডি-তে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে তিন জন কর্মসূত্রে ইতালি গিয়েছিলেন এবং একজন কলকাতা বিমানবন্দরে রিসেপশনিস্টের কাজ করেন।
করোনা আক্রান্ত দেশ থেকে আসা যাত্রীদের স্বাস্থ্য যেখানে পরীক্ষা করা হয়, সেখানে কাজ করেন তিনি। চারজনের মধ্যে ইতালি-যোগে পর্যবেক্ষণাধীন এক নারীর লালারসের নমুনা এ দিন পরীক্ষার জন্য নাইসেডে পাঠানো হয়েছে। ওই চার জন ছাড়া মালয়েশিয়া থেকে ফেরা এক ছাত্র এবং মিসর-যোগে এক বৃদ্ধকে করোনা সন্দেহে আইডি-তে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। জয়পুরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা এক যুবক মায়ের অসুস্থতার জন্য কলকাতায় ফেরেন সোমবার। তাকে আইডি-তে পাঠানো হয়েছিল। স্বাস্থ্য ভবনের একজন কর্মকর্তা জানান, ওই যুবককে আজ বুধবার ছেড়ে দেওয়া হতে পারে। তার আর নমুনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই।

Leave A Reply

Your email address will not be published.